আজ রবিবার ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ১:০২

add

নেই আইনের প্রয়োগ ,কমছে কৃষি জমি

প্রবাসীর কথা ডেস্ক
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০১৯

রাজাপুর,ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির রাজাপুর সদর উপজেলার ফুলহার গ্রামের স্বচ্ছল কৃষক আব্দুর রহিম খান। তাঁর বর্তমান বয়স বাহাত্তর বছর। পুরো জীবনজুড়েই কৃষির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন তিনি। পৈতৃক সূত্রে ৫২ বিঘা জমি পেয়েছিলেন। দেড় যুগ আগেও মোট জমি থেকে ৪৫ বিঘা জমি কৃষিকাজে ব্যবহার করতেন। বর্তমানে তাঁর ৬ সন্তানের মধ্যে জমি ভাগ করে দিয়েছেন। এ ছাড়া যে জমিগুলো গ্রামীন পথ, আঞ্চলিক সড়ক ও মহাসড়কের পাশে রয়েছে, সেই জমিগুলোর মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে বহুগুনে। তাই ভূমিদস্যুদের হাত থেকে বাঁচাতে জমিগুলোর কোথাও বাড়ি, কোথাও বাগান, আবার কোথাও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে বালু ফেলে রেখেছেন। এ ছাড়া ভালো দাম পাওয়ায় কিছু জমি বিক্রি করেছেন। বিক্রি করা জমিতে বাড়ি-ঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

এভাবেই গত দেড় যুগে রহিম খানের কৃষি জমি কমেছে প্রায় ১৮ বিঘা। বর্তমানে মাত্র ২৭ বিঘা জমি কৃষির জন্য থাকলেও শ্রমিকের অভাব, কৃষি উপকরণের মূল্যবৃদ্ধি ও ধানের দাম কম হওয়ায় বর্তমান ইরি মৌসুমে অধিকাংশ জমিতেই ধান রোপন করেননি তিনি।

এ তো গেলো স্বচ্ছল রহিম খানের কথা। এবার আসি উপজেলার ইন্দ্রপাশা গ্রামের ভূমিহীন আব্দুল মান্নান হাওলাদারের কথায়। তিনি ভূমিহীন হওয়ায় সরকারের পক্ষ থেকে ৬৭ শতাংশ জমি বন্দবস্ত পেয়েছেন। এতদিন ধরে সেই জমি কৃষিকাজে ব্যবহৃত হলেও বেশি লাভের আশায় সেখানে তিনি পুকুর খনন করে মাছ চাষ করার উদ্যোগ নিয়েছেন।

এভাবেই প্রতিদিন কৃষি জমি কমছে। গবেষণা প্রতিষ্ঠান অ্যাসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট তাদের সর্বশেষ গবেষণা প্রতিবেদনে জানায়, দেশে মোট কৃষি জমির পরিমাণ প্রায় ১৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন হেক্টর। এর শতকরা ৬৬.৬ ভাগ জমি কৃষি কাজে ব্যবহার করা হয়। গত একযুগে ২৬ লাখ ৫৫ হাজার ৭৩১ একর কৃষি জমি অকৃষি খাতে চলে গেছে। পরিসংখ্যান আরো বলছে, দেশে কৃষি জমি অকৃষিতে পরিণত করায় এগিয়ে রয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ। এই বিভাগে প্রতি বছর প্রায় ১৮ হাজার হেক্টর জমি কৃষি থেকে হারিয়ে যায়। দেশের শস্যভান্ডার খ্যাত বরিশাল বিভাগেও প্রতি বছর সাড়ে ৬ হাজার হেক্টর কৃষি জমি অকৃষি খাতে চলে যায়। ফলে কৃষিতে এর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। কৃষি জমি রক্ষায় সরকার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করলেও বাস্তবসম্মত কোনো আইন অদ্যবদি কার্যকর হয়নি। ‘জাতীয় ভূমি ব্যবহার নীতি-২০১০’ এবং ‘কৃষি জমি সুরক্ষা ও ভূমি জোনিং আইন-২০১০’ অনুযায়ী কৃষি জমি কৃষিকাজ ছাড়া অন্য কোনো কাজে ব্যবহার করা যাবে না। তবে এই আইনে যথাযথ প্রয়োগ না থাকায় এই আইন কেউ মানছে না।

দক্ষিণাঞ্চলের অধিকাংশ কৃষি জমি একফসলি হওয়ায় চাষাবাদে আগ্রহ হারাচ্ছেন কৃষক। ফলে প্রতিদিন কৃষি জমি কমলেও প্রশাসনের তেমন কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেসন (বিএডিসি) শুধু সভা-সেমিনারের মাধ্যমে কৃষি জমি রক্ষার চেষ্টা করছেন।

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার পূর্ব চর রাজাপুর কৃষক সমবায় সমিতির সভাপতি মো. আব্দুল হক জানান, ‘এক বিঘা জমি চাষের জন্য তৈরি করতে, বীজ বুনতে ও ফসল ঘরে তুলতে যে পরিমাণ টাকা খরচ হয় ধান বিক্রি করে সেই খরচ ওঠানো যায় না। তাই কৃষিতে আগ্রহ হারাচ্ছেন কৃষক। লাভ না হওয়ায় কৃষিকাজ না করে কৃষি জমি অন্য কাজে ব্যবহার করছেন সাধারণ মানুষ। যা আগামী দিনে কৃষি উৎপাদনে বিরুপ প্রভাব ফেলবে।’

Print Friendly, PDF & Email
বাংলাদেশে যাত্রা করলো সংবাদ সংস্থা ‘A24’
আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি গঠন
সর্বকনিষ্ঠ প্রার্থী মালয়েশিয়া প্রবাসী ছাত্র নেতা মোঃ রবিউল ইসলামের মনোনয়ন পত্র দাখিল
মালয়েশিয়া প্রবাসীদের দুঃখ গাথা জীবন
ঢাবি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে ছাত্রলীগের অবস্থান
বি এস ইউ এম-এর বার্ষিক কর্মপরিকল্পনা ও বৈশাখী উৎসব
মালয়েশিয়ায় হঠাৎ পুলিশের ফাঁদ : ৩২০ প্রবাসী আটক
আউট সোর্সিংয়ের নামে ডিজিটাল প্রতারণা, ২০০ কোটির মালিক পলাশ
মালয়েশিয়া প্রফেসর ড. বদরুল হুদা খানকে সংবর্ধনা
সুখ পেতে বহুতল বাড়ি লাগে না
মালয়েশিয়ার কেএলসিসিতে ঘুরতে এসে ৯২ বাংলাদেশী গ্রেফতার!
মালয়েশিয়াতে শরীয়তপুর প্রবাসীদের নৌকায় ভোট চেয়ে প্রচারনা
বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেসক্লাব মালয়েশিয়ার পূর্ণাঙ্গ কমিটি
মালয়েশিয়ার নতুন সুলতান কে এই টেঙ্কু আবদুল্লাহ
বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন মালয়েশিয়া শাখার উদ্যেগে নির্বাচন প্রস্ততি সভা অনুষ্ঠিত
বাংলাদেশি শ্রমিক নির্যাতন : ডব্লিউআরপির বিরুদ্ধে মামলা করবে মালয় সরকার
বিয়ে-বিচ্ছেদের খবরে ক্ষুব্ধ নুসরাত জাহান
মালয়েশিয়ায় আরাফাত রহমান কোকোর ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
শেখ হাসিনাকে ৫ দেশের রাষ্ট্র-সরকার প্রধানের অভিনন্দন
ছোট শিশুদের গরুর দুধ খাওয়ানো কি ঠিক?

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
প্রয়োজনীয় নাম্বার