Dhaka , Monday, 30 January 2023

ভূমধ্যসাগরে ৮৫ অভিবাসী উদ্ধার

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 02:05:14 pm, Wednesday, 4 January 2023
  • 14 বার

প্রবাস ডেস্ক: জিও ব্যারেন্টেসের জাহাজ ৮৫ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে। মানবিক চিকিৎসা সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারের (এমএসএফ) কেন্দ্রে ওই ৮৫ জন অভিবাসীকে নিয়ে যাওয়া হয়।

ভূমধ্যসাগরে দুর্দশাগ্রস্ত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করা হয়। অভিবাসীদের জাতীয়তা সম্পর্কে এখনো স্পষ্টভাবে কিছু জানা যায়নি।

এমএসএফ জানিয়েছে, লিবিয়া উপকূলের কাছে আন্তর্জাতিক জলসীমায় ডুবে গিয়েছিল নৌকাটি। জিও ব্যারেন্টস অনুসন্ধান ও উদ্ধারকারী জাহাজে থাকা দলটি ৪১ জনকে উদ্ধার করে।

এরপর ইতালি কর্তৃপক্ষের অনুরোধে পরে জিও ব্যারেন্টস আরও ৪৪ জনকে সেই জাহাজে জায়গা দেয়। প্রথমে একটি বাণিজ্যিক জাহাজ এই ৪৪ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছিল। এরপর জিও ব্যারেন্টস ইতালির নির্দেশে ট্যারান্টোর দক্ষিণ বন্দরে যাত্রা করবে। প্রায় দুই দিন লাগবে সেখানে পৌঁছাতে।

ইতালির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালের ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রায় এক লাখ চার হাজার অভিবাসী নৌকায় চেপে সে দেশে পৌঁছেছিল। তাদের মধ্যে অনেকে নিজেরাই নৌকা নিয়ে এসেছেন। বিপজ্জনক সমুদ্রপথে লিবিয়া, তিউনিশিয়া হয়ে ইতালি পৌঁছেছেন তারা।

রোমের ডানপন্থি সরকার এই আগমন সীমিত করতে চায়। দাতা সংস্থাগুলো অভিবাসীদের উদ্ধার অভিযানে সাহায্য করে। এনজিওগুলোর এই জাতীয় আচরণে সরকার অসন্তুষ্ট।

ভূমধ্যসাগরে বেসরকারি সংস্থার বিভিন্ন জাহাজের উদ্ধার অভিযান নিয়ে নতুন এক ডিক্রি জারি করেছে ইতালি। নতুন এই ডিক্রিতে বলা হয়, কোনো উদ্ধারকারী জাহাজ একই সময়ে সমুদ্রের একবারের বেশি অভিযান পরিচালনা করতে পারবে না। একবার উদ্ধার কার্যক্রম শেষ হলে সাগরে নতুন কোনো নতুন উদ্ধার অভিযানে না গিয়ে প্রথমে জাহাজটিকে নির্ধারিত বন্দরে ভিড়তে হবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

ভূমধ্যসাগরে ৮৫ অভিবাসী উদ্ধার

আপডেট টাইম : 02:05:14 pm, Wednesday, 4 January 2023

প্রবাস ডেস্ক: জিও ব্যারেন্টেসের জাহাজ ৮৫ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে। মানবিক চিকিৎসা সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারের (এমএসএফ) কেন্দ্রে ওই ৮৫ জন অভিবাসীকে নিয়ে যাওয়া হয়।

ভূমধ্যসাগরে দুর্দশাগ্রস্ত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করা হয়। অভিবাসীদের জাতীয়তা সম্পর্কে এখনো স্পষ্টভাবে কিছু জানা যায়নি।

এমএসএফ জানিয়েছে, লিবিয়া উপকূলের কাছে আন্তর্জাতিক জলসীমায় ডুবে গিয়েছিল নৌকাটি। জিও ব্যারেন্টস অনুসন্ধান ও উদ্ধারকারী জাহাজে থাকা দলটি ৪১ জনকে উদ্ধার করে।

এরপর ইতালি কর্তৃপক্ষের অনুরোধে পরে জিও ব্যারেন্টস আরও ৪৪ জনকে সেই জাহাজে জায়গা দেয়। প্রথমে একটি বাণিজ্যিক জাহাজ এই ৪৪ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছিল। এরপর জিও ব্যারেন্টস ইতালির নির্দেশে ট্যারান্টোর দক্ষিণ বন্দরে যাত্রা করবে। প্রায় দুই দিন লাগবে সেখানে পৌঁছাতে।

ইতালির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালের ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রায় এক লাখ চার হাজার অভিবাসী নৌকায় চেপে সে দেশে পৌঁছেছিল। তাদের মধ্যে অনেকে নিজেরাই নৌকা নিয়ে এসেছেন। বিপজ্জনক সমুদ্রপথে লিবিয়া, তিউনিশিয়া হয়ে ইতালি পৌঁছেছেন তারা।

রোমের ডানপন্থি সরকার এই আগমন সীমিত করতে চায়। দাতা সংস্থাগুলো অভিবাসীদের উদ্ধার অভিযানে সাহায্য করে। এনজিওগুলোর এই জাতীয় আচরণে সরকার অসন্তুষ্ট।

ভূমধ্যসাগরে বেসরকারি সংস্থার বিভিন্ন জাহাজের উদ্ধার অভিযান নিয়ে নতুন এক ডিক্রি জারি করেছে ইতালি। নতুন এই ডিক্রিতে বলা হয়, কোনো উদ্ধারকারী জাহাজ একই সময়ে সমুদ্রের একবারের বেশি অভিযান পরিচালনা করতে পারবে না। একবার উদ্ধার কার্যক্রম শেষ হলে সাগরে নতুন কোনো নতুন উদ্ধার অভিযানে না গিয়ে প্রথমে জাহাজটিকে নির্ধারিত বন্দরে ভিড়তে হবে।