Dhaka , Wednesday, 8 February 2023

ইউক্রেন যুদ্ধে এবার ট্যাংক পাঠাচ্ছে ফ্রান্স

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 01:57:40 pm, Thursday, 5 January 2023
  • 13 বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে তার দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। সেখানে ফরাসি প্রেসিডেন্ট দ্রুত এএমএক্স-১০ যুদ্ধের ট্যাংক ইউক্রেনে পাঠানোর কথা বলেছেন।

এক টুইটবার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এ কথা জানান।

এএমএক্স-১০ মডেলের অত্যাধুনিক এই ট্যাংকে চারজন সেনা একসঙ্গে বসতে পারেন। লাইট ট্যাংক বিভাগের এ যুদ্ধযান দ্রুত চলতে পারে।

এদিকে ফ্রান্স এই যুদ্ধযান ইউক্রেনকে পাঠানোর কথা বললেও তা কবে এবং কীভাবে পাঠানো হবে সেসব নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি। এমনকি কতগুলো ট্যাংক পাঠানো হবে তাও অস্পষ্ট। জেলেনস্কিও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

এর আগে ইউক্রেনকে হাউইৎজার মিসাইল, এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমের মতো অস্ত্র দিয়েছিল ফ্রান্স। তবে এই প্রথম ট্যাংকের মতো যুদ্ধাস্ত্র দেওয়ার কথা জানিয়েছে তারা।

দিমিত্রি রোগোজিনের চিঠি
রাশিয়ার সাবেক ডেপুটি মন্ত্রী দিমিত্রি রোগোজিন সম্প্রতি ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাক্রোঁকে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন বলে নিজেই টেলিগ্রামে লিখেছেন। সেখানে একটি শার্পনেলের টুকরো আছে।

দিমিত্রি জানিয়েছেন, কিছু দিন আগে পূর্ব ইউক্রেনের দোনেৎস্কে একটি হোটেলে বসে তারা কথা বলেছিলেন। আচমকাই একটি বিস্ফোরণ হয় এবং একটি শার্পনেল তার শরীরে এসে লাগে। কোনোমতে প্রাণে বেঁচে গেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ওই শার্পনেলটি ফ্রান্সে তৈরি বলে জানিয়েছেন দিমিত্রি।

বিস্ফোরণে ছুটে আসা শার্পনেলটি একটি খামে ভরে একটি চিঠিসহ তা ফরাসি প্রেসিডেন্টকে তিনি পাঠিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দিমিত্রি।

বেয়ারবকের মন্তব্য
সম্প্রতি পর্তুগালে গেছেন জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, প্রয়োজনে ইউক্রেনকে আরও অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করা হবে।

তিনি বলেন, রাশিয়া এখনো ইউক্রেনে আক্রমণ চালিয়ে যাচ্ছে। শত অনুরোধ সত্ত্বেও রাশিয়া আক্রমণ বন্ধ করছে না। ফলে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়ানো এবং তাদের অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করা জার্মানির অন্যতম কর্তব্য।

বেয়ারবক গ্রিন পার্টির সদস্য। যুদ্ধের শুরুতে তারা ইউক্রেনকে সরাসরি অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করার সমর্থক ছিল না। কিন্তু যুদ্ধ যত এগিয়েছে, তারা অস্ত্র সরবরাহে সমর্থন জানিয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

ইউক্রেন যুদ্ধে এবার ট্যাংক পাঠাচ্ছে ফ্রান্স

আপডেট টাইম : 01:57:40 pm, Thursday, 5 January 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন, ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সঙ্গে তার দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। সেখানে ফরাসি প্রেসিডেন্ট দ্রুত এএমএক্স-১০ যুদ্ধের ট্যাংক ইউক্রেনে পাঠানোর কথা বলেছেন।

এক টুইটবার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এ কথা জানান।

এএমএক্স-১০ মডেলের অত্যাধুনিক এই ট্যাংকে চারজন সেনা একসঙ্গে বসতে পারেন। লাইট ট্যাংক বিভাগের এ যুদ্ধযান দ্রুত চলতে পারে।

এদিকে ফ্রান্স এই যুদ্ধযান ইউক্রেনকে পাঠানোর কথা বললেও তা কবে এবং কীভাবে পাঠানো হবে সেসব নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি। এমনকি কতগুলো ট্যাংক পাঠানো হবে তাও অস্পষ্ট। জেলেনস্কিও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

এর আগে ইউক্রেনকে হাউইৎজার মিসাইল, এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমের মতো অস্ত্র দিয়েছিল ফ্রান্স। তবে এই প্রথম ট্যাংকের মতো যুদ্ধাস্ত্র দেওয়ার কথা জানিয়েছে তারা।

দিমিত্রি রোগোজিনের চিঠি
রাশিয়ার সাবেক ডেপুটি মন্ত্রী দিমিত্রি রোগোজিন সম্প্রতি ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাক্রোঁকে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন বলে নিজেই টেলিগ্রামে লিখেছেন। সেখানে একটি শার্পনেলের টুকরো আছে।

দিমিত্রি জানিয়েছেন, কিছু দিন আগে পূর্ব ইউক্রেনের দোনেৎস্কে একটি হোটেলে বসে তারা কথা বলেছিলেন। আচমকাই একটি বিস্ফোরণ হয় এবং একটি শার্পনেল তার শরীরে এসে লাগে। কোনোমতে প্রাণে বেঁচে গেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ওই শার্পনেলটি ফ্রান্সে তৈরি বলে জানিয়েছেন দিমিত্রি।

বিস্ফোরণে ছুটে আসা শার্পনেলটি একটি খামে ভরে একটি চিঠিসহ তা ফরাসি প্রেসিডেন্টকে তিনি পাঠিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দিমিত্রি।

বেয়ারবকের মন্তব্য
সম্প্রতি পর্তুগালে গেছেন জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, প্রয়োজনে ইউক্রেনকে আরও অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করা হবে।

তিনি বলেন, রাশিয়া এখনো ইউক্রেনে আক্রমণ চালিয়ে যাচ্ছে। শত অনুরোধ সত্ত্বেও রাশিয়া আক্রমণ বন্ধ করছে না। ফলে ইউক্রেনের পাশে দাঁড়ানো এবং তাদের অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করা জার্মানির অন্যতম কর্তব্য।

বেয়ারবক গ্রিন পার্টির সদস্য। যুদ্ধের শুরুতে তারা ইউক্রেনকে সরাসরি অস্ত্র দিয়ে সাহায্য করার সমর্থক ছিল না। কিন্তু যুদ্ধ যত এগিয়েছে, তারা অস্ত্র সরবরাহে সমর্থন জানিয়েছে।