Dhaka , Monday, 30 January 2023

মালয়েশিয়ায় ৯ বাংলাদেশি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে সিলগালা

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:09:37 am, Sunday, 22 January 2023
  • 11 বার

মালয়েশিয়া ডেস্ক: বৈধ ব্যবসায়িক কাগজপত্র না থাকায়, মালয়েশিয়ায় ৯ বাংলাদেশি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সিলগালা।
মালয়েশিয়ায় ৯ বাংলাদেশির ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সিলগালা করেছে, কুয়ালালামপুর সিটি করপোরেশনের (ডিবিকেএল) এনফোর্সমেন্ট ডিপার্টমেন্ট।

 

রাজধানী কুয়ালালামপুরের বারজায়া টাইমস স্কয়ার, জালান ইম্বি এবং বুকিত বিনতাংয়ে অভিযান চালিয়ে এ ৯টি বাংলাদেশি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সিলগালা করে দেওয়া হয়।

 

করপোরেশন বলছে, বাংলাদেশি মালিকানাধীন এসব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ কোনো ব্যবসায়িক কাগজপত্র না থাকায় সিলগালা করা হয়েছে।

 

কুয়ালালামপুর সিটি করপোরেশন (ডিবিকেএল) শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বিকেল থেকে শুরু করে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে এ অভিযান।

 

সিটি করপোরেশন এক বিবৃতিতে বলেছে, এক সপ্তাহ আগে থেকে এসব বাণিজ্যিক এলাকায় গোয়েন্দাদের সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার বিকেল থেকে বাংলাদেশি মালিকানাধীন পোশাক, ব্যাগ, মোবাইল ফোন সরঞ্জাম, রেস্টুরেন্টসহ অন্তত ১০টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে একযোগে অভিযান চালানো হলে ৯টি প্রতিষ্ঠানই তাদের বৈধ ব্যবসায়িক কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায়, দেশটির স্থানীয় সরকার আইন ১৯৭৬-এর ১০১ (১) (ভি) অনুযায়ী, তাৎক্ষণিকভাবে ৯টি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়।

 

এছাড়া ব্যবসা ও শিল্প বাণিজ্য আইন (ডব্লিউপিকেএল) ২০১৬ আইন (৬)-এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ১০টি নোটিশ জারি করা হয়। এর মধ্যে বৈধ ব্যবসায়িক সনদ বা কাগজপত্র না থাকায় ৬টি প্রতিষ্ঠানকে নোটিশ, অনুমতি ছাড়া কর্মী নিয়োগের জন্য ৩টি প্রতিষ্ঠান এবং স্থানীয় সরকার আইন ১৯৭৬-এর শর্ত লঙ্ঘনের জন্য আরও একটি প্রতিষ্ঠানকে নোটিশ দেওয়া হয়।

 

দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক খায়রুল জাইমি দাউদের সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘কুয়ালালামপুরসহ বিভিন্ন জায়গায় বিদেশি অভিবাসীরা অবৈধভাবে দোকানপাট খুলে ব্যবসা পরিচালনা করছেন, যা অভিবাসন আইনে অবৈধ। তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে।’

 

কুয়ালালামপুর সিটি করপোরেশন বলছে, যেসব এলাকায় বিদেশি নাগরিক পরিচালিত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে, সেসব এলাকায় ক্রমাগত পর্যবেক্ষণ এবং তদন্ত চলবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

মালয়েশিয়ায় ৯ বাংলাদেশি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে সিলগালা

আপডেট টাইম : 08:09:37 am, Sunday, 22 January 2023

মালয়েশিয়া ডেস্ক: বৈধ ব্যবসায়িক কাগজপত্র না থাকায়, মালয়েশিয়ায় ৯ বাংলাদেশি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সিলগালা।
মালয়েশিয়ায় ৯ বাংলাদেশির ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সিলগালা করেছে, কুয়ালালামপুর সিটি করপোরেশনের (ডিবিকেএল) এনফোর্সমেন্ট ডিপার্টমেন্ট।

 

রাজধানী কুয়ালালামপুরের বারজায়া টাইমস স্কয়ার, জালান ইম্বি এবং বুকিত বিনতাংয়ে অভিযান চালিয়ে এ ৯টি বাংলাদেশি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান সিলগালা করে দেওয়া হয়।

 

করপোরেশন বলছে, বাংলাদেশি মালিকানাধীন এসব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ কোনো ব্যবসায়িক কাগজপত্র না থাকায় সিলগালা করা হয়েছে।

 

কুয়ালালামপুর সিটি করপোরেশন (ডিবিকেএল) শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বিকেল থেকে শুরু করে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে এ অভিযান।

 

সিটি করপোরেশন এক বিবৃতিতে বলেছে, এক সপ্তাহ আগে থেকে এসব বাণিজ্যিক এলাকায় গোয়েন্দাদের সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার বিকেল থেকে বাংলাদেশি মালিকানাধীন পোশাক, ব্যাগ, মোবাইল ফোন সরঞ্জাম, রেস্টুরেন্টসহ অন্তত ১০টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে একযোগে অভিযান চালানো হলে ৯টি প্রতিষ্ঠানই তাদের বৈধ ব্যবসায়িক কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায়, দেশটির স্থানীয় সরকার আইন ১৯৭৬-এর ১০১ (১) (ভি) অনুযায়ী, তাৎক্ষণিকভাবে ৯টি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়।

 

এছাড়া ব্যবসা ও শিল্প বাণিজ্য আইন (ডব্লিউপিকেএল) ২০১৬ আইন (৬)-এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ১০টি নোটিশ জারি করা হয়। এর মধ্যে বৈধ ব্যবসায়িক সনদ বা কাগজপত্র না থাকায় ৬টি প্রতিষ্ঠানকে নোটিশ, অনুমতি ছাড়া কর্মী নিয়োগের জন্য ৩টি প্রতিষ্ঠান এবং স্থানীয় সরকার আইন ১৯৭৬-এর শর্ত লঙ্ঘনের জন্য আরও একটি প্রতিষ্ঠানকে নোটিশ দেওয়া হয়।

 

দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক খায়রুল জাইমি দাউদের সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘কুয়ালালামপুরসহ বিভিন্ন জায়গায় বিদেশি অভিবাসীরা অবৈধভাবে দোকানপাট খুলে ব্যবসা পরিচালনা করছেন, যা অভিবাসন আইনে অবৈধ। তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে।’

 

কুয়ালালামপুর সিটি করপোরেশন বলছে, যেসব এলাকায় বিদেশি নাগরিক পরিচালিত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে, সেসব এলাকায় ক্রমাগত পর্যবেক্ষণ এবং তদন্ত চলবে।