Dhaka , Tuesday, 25 June 2024

পাকিস্তানে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত বেড়ে ৫৯

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:04:53 am, Tuesday, 31 January 2023
  • 43 বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের পেশোয়ারে পুলিশ লাইনস এলাকার একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৯ জনে। এ ঘটনায় আরও ১৫৭ জন আহত হয়েছেন। হতাহতের এই সংখ্যা নিশ্চিত করেছেন লেডি রিডিং হাসপাতালের (এলআরএইচ) মুখপাত্র মোহাম্মদ আসিম।

পেশোয়ারের কমিশনার রিয়াজ মেহসুদ বলেন, ধ্বংসস্তূপের নিচে বহু লোক চাপা পড়ায় মসজিদের ভেতরে উদ্ধার অভিযান চালানো হচ্ছে। শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে এবং আহতদের সর্বোত্তম চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। এ হামলার দায় স্বীকার করেছে নিষিদ্ধ ঘোষিত তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি)।

পেশোয়ার ক্যাপিটাল সিটি পুলিশ অফিসার (সিসিপিও) মুহম্মদ ইজাজ খান সাংবাদিকদের বলেন, বিস্ফোরণের পর মসজিদের ছাদ ধসে পড়ে। অনেক জওয়ান এখনও ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে আছে এবং উদ্ধারকারীরা তাদের বের করার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, মসজিদের মূল হলটির ধারণক্ষমতা ২৫০ থেকে ৩০০ জন ছিল, যা ধসে পড়েছে। তবে ভবনটির বাকি অংশ এখনও অক্ষত রয়েছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিসিপিও বলেন, ঘটনাস্থলে এক ধরনের বিস্ফোরকের ঘ্রাণ পাওয়া গেছে। তবে হামলায় কী ধরনের বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে, তা নিশ্চিতভাবে এখনই বলা যাচ্ছে না। মুহম্মদ ইজাজ খান বলেন, বিস্ফোরণের সময় ওই এলাকায় ৩০০ থেকে ৪০০ পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এটি স্পষ্ট যে, নিরাপত্তাজনিত ত্রুটি ছিল।

মৃতদেহ ও আহতদের উদ্ধার করে এলআরএইচে স্থানান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। এর আগে, সোমবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে পেশোয়ার শহরের পুলিশ লাইনস এলাকার একটি মসজিদে এই বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় মসজিদটিতে জোহরের নামাজ চলছিল।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

পাকিস্তানে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত বেড়ে ৫৯

আপডেট টাইম : 08:04:53 am, Tuesday, 31 January 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের পেশোয়ারে পুলিশ লাইনস এলাকার একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৯ জনে। এ ঘটনায় আরও ১৫৭ জন আহত হয়েছেন। হতাহতের এই সংখ্যা নিশ্চিত করেছেন লেডি রিডিং হাসপাতালের (এলআরএইচ) মুখপাত্র মোহাম্মদ আসিম।

পেশোয়ারের কমিশনার রিয়াজ মেহসুদ বলেন, ধ্বংসস্তূপের নিচে বহু লোক চাপা পড়ায় মসজিদের ভেতরে উদ্ধার অভিযান চালানো হচ্ছে। শহরের বিভিন্ন হাসপাতালে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে এবং আহতদের সর্বোত্তম চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। এ হামলার দায় স্বীকার করেছে নিষিদ্ধ ঘোষিত তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি)।

পেশোয়ার ক্যাপিটাল সিটি পুলিশ অফিসার (সিসিপিও) মুহম্মদ ইজাজ খান সাংবাদিকদের বলেন, বিস্ফোরণের পর মসজিদের ছাদ ধসে পড়ে। অনেক জওয়ান এখনও ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে আছে এবং উদ্ধারকারীরা তাদের বের করার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, মসজিদের মূল হলটির ধারণক্ষমতা ২৫০ থেকে ৩০০ জন ছিল, যা ধসে পড়েছে। তবে ভবনটির বাকি অংশ এখনও অক্ষত রয়েছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিসিপিও বলেন, ঘটনাস্থলে এক ধরনের বিস্ফোরকের ঘ্রাণ পাওয়া গেছে। তবে হামলায় কী ধরনের বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে, তা নিশ্চিতভাবে এখনই বলা যাচ্ছে না। মুহম্মদ ইজাজ খান বলেন, বিস্ফোরণের সময় ওই এলাকায় ৩০০ থেকে ৪০০ পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এটি স্পষ্ট যে, নিরাপত্তাজনিত ত্রুটি ছিল।

মৃতদেহ ও আহতদের উদ্ধার করে এলআরএইচে স্থানান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। এর আগে, সোমবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে পেশোয়ার শহরের পুলিশ লাইনস এলাকার একটি মসজিদে এই বিস্ফোরণ ঘটে। এ সময় মসজিদটিতে জোহরের নামাজ চলছিল।