Dhaka , Wednesday, 24 April 2024

নতুন পরিচয়ে টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসছেন মুর

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:04:45 am, Saturday, 11 February 2023
  • 38 বার

স্পোর্টস ডেস্ক: জিম্বাবুয়ে জাতীয় দল ও ‘এ’ দলের হয়ে বেশ কয়েক দফায় বাংলাদেশ সফরে এসেছেন পিটার মুর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার অভিষেক মিরপুরে, বাংলাদেশে খেলেছেন তিন সংস্করণেই। এবার তিনি বাংলাদেশে আসছেন নতুন পরিচয়ে। জিম্বাবুয়ের হয়ে ৭৮টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ক্রিকেটার বদলে ফেলেছেন তার দল। বাংলাদেশ সফরে আয়ারল্যান্ড টেস্ট দলে জায়গা পেয়েছেন ৩২ বছর বয়সী এই কিপার-ব্যাটসম্যান।

গত প্রায় ১০ বছর ধরেই আয়ারল্যান্ডের ক্লাব ক্রিকেটে খেলে আসছেন মুর। জন্ম জিম্বাবুয়েতে হলেও আইরিশ পাসপোর্টও আছে তার। জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট মৌসুমের বাইরে অনেকটা সময় তিনি আয়ারল্যান্ডেই কাটান। ২০২১ সালে তিনি প্রত্যাখ্যান করেন ক্রিকেট জিম্বাবুয়ের কেন্দ্রীয় চুক্তি। তখন থেকেই গুঞ্জনটা ছিল যে তিনি আয়ারল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে চান।

গত বছর তা খোলাসাই হয়ে যায়। ইংল্যান্ড সফরে আয়ারল্যান্ডের ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াডে রাখা হয় তাকে। এরপর বছরের শেষ দিকে জিম্বাবুয়ে সফর দিয়েই আয়ারল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে তার অভিষেক হবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। তবে আইরিশ নির্বাচকরা তখন একটু সময় নেন। অবশেষে বাংলাদেশ সফর দিয়ে শেষ হচ্ছে মুরের অপেক্ষা।
বাংলাদেশ সফরের জন্য তিন সংস্করণেই আয়ারল্যান্ডের দল ঘোষণা করা হয়েছে। মুর আছেন শুধু টেস্টেই। ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ের হয়ে দুটি টেস্ট খেলে সিলেটে অপরাজিত ৬৩ ও মিরপুরে ৮৩ রানের ইনিংস খেলেছিলেন মুর। ওই সফরের পর আর টেস্ট খেলা হয়ে ওঠেনি তার। এছাড়াও বাংলাদেশে তিনি খেলেছেন ৭টি ওয়ানডে ও ৪টি টি-টোয়েন্টি।

সব মিলিয়ে জিম্বাবুয়ের হয়ে ৮ টেস্ট, ৪৯ ওয়ানডে ও ২১টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন মুর। সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলেছেন ২০১৯ সালের অক্টোবরে, সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে। সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন তিনি ২০১৯ সালের জুলাইয়ে এখনকার দেশ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেই। এখনও অবশ্য তিনি জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলে যাচ্ছেন। গত মাসেও খেলেছেন বড় দৈর্ঘ্যের টুর্নামেন্ট লগান কাপে।

মুর ছাড়াও আয়ার‌ল্যান্ডের স্কোয়াডে নতুন মুখ ম্যাথু হামফ্রেজ। তিন সংস্করণের দলেই জায়গা পেয়েছেন ২০ বছর বয়সী এই বাঁহাতি স্পিনার। এখনও পর্যন্ত ৬টি লিস্ট ‘এ’ ও ৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয়নি।

অভিজ্ঞ ওপেনার পল স্টার্লিং সীমিত ওভারের দুই স্কোয়াডে থাকলেও নেই টেস্টে। জশ লিটল আছেন শুধু ওয়ানডে দলে। পিএসএল ও আইপিএলে দল পাওয়া তরুণ বাঁহাতি পেসারকে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের জন্য ছেড়ে দিয়েছে বোর্ড। তিন সংস্করণেই দলকে নেতৃত্ব দেবেন অ্যান্ড্রু বালবার্নি, যিনি মাত্রই বিপিএল খেলে গেলেন খুলনা টাইগার্সের হয়ে।

এই সফর দিয়েই টেস্ট নেতৃত্বে অভিষেক হবে বালবার্নির। আয়ারল্যান্ড এখনও পর্যন্ত টেস্ট খেলেছে মোটে তিনটি। সবকটিতেই নেতৃত্ব দিয়েছেন উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড। আইরিশরা সবশেষ টেস্ট খেলেছে ২০১৯ সালের জুলাইয়ে। সেই ম্যাচের একাদশের ৮ জনই এবার নেই স্কোয়াডে। তাদের মধ্যে অবসর নিয়েছেন কয়েকজন, কেউ কেউ পাননি সুযোগ।

বাংলাদেশ সফরে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট খেলবে আয়ার‌ল্যান্ড। ১৫ মার্চ গা গরমের ম্যাচের পর ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচ ১৮, ২০ ও ২৩ মার্চ। গোটা সিরিজ হবে সিলেটে। এরপর টি-টোয়েন্টি সিরিজ হবে চট্টগ্রামে, ২৭, ২৯ ও ৩১ মার্চ। একমাত্র টেস্ট ম্যাচ ৪ এপ্রিল থেকে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে।

আয়ারল্যান্ড ওয়ানডে দল: অ্যান্ড্রু বালবার্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, কার্টিস ক্যাম্পার, গ্যারেথ ডেলানি, জর্জ ডকরেল, স্টিভেন ডোহেনি, গ্রাহাম হিউম, ম্যাথু হামফ্রেজ, জশ লিটল, অ্যান্ড্রু ম্যাকব্রাইন, ব্যারি ম্যাককার্থি, পল স্টার্লিং, হ্যারি টেক্টর, লর্কান টাকার, বেন হোয়াইট।

আয়ারল্যান্ড টি-টোয়েন্টি দল: অ্যান্ড্রু বালবার্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, কার্টিস ক্যাম্পার, গ্যারেথ ডেলানি, জর্জ ডকরেল, গ্রাহাম হিউম, ম্যাথু হামফ্রেজ, ব্যারি ম্যাককার্থি, কনর ওলফার্ট, পল স্টার্লিং, হ্যারি টেক্টর, লর্কান টাকার, বেন হোয়াইট, ক্রেইগ ইয়াং।

আয়ারল্যান্ড টেস্ট দল: অ্যান্ড্রু বালবার্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, কার্টিস ক্যাম্পার, মারি কমিন্স, জর্জ ডকরেল, গ্রাহাম হিউম, ম্যাথু হামফ্রেজ, অ্যান্ড্রু ম্যাকব্রাইন, ব্যারি ম্যাককার্থি, জেমস ম্যাককলাম, পিটার মুর, হ্যারি টেক্টর, লর্কান টাকার, বেন হোয়াইট।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

নতুন পরিচয়ে টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসছেন মুর

আপডেট টাইম : 08:04:45 am, Saturday, 11 February 2023

স্পোর্টস ডেস্ক: জিম্বাবুয়ে জাতীয় দল ও ‘এ’ দলের হয়ে বেশ কয়েক দফায় বাংলাদেশ সফরে এসেছেন পিটার মুর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার অভিষেক মিরপুরে, বাংলাদেশে খেলেছেন তিন সংস্করণেই। এবার তিনি বাংলাদেশে আসছেন নতুন পরিচয়ে। জিম্বাবুয়ের হয়ে ৭৮টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ক্রিকেটার বদলে ফেলেছেন তার দল। বাংলাদেশ সফরে আয়ারল্যান্ড টেস্ট দলে জায়গা পেয়েছেন ৩২ বছর বয়সী এই কিপার-ব্যাটসম্যান।

গত প্রায় ১০ বছর ধরেই আয়ারল্যান্ডের ক্লাব ক্রিকেটে খেলে আসছেন মুর। জন্ম জিম্বাবুয়েতে হলেও আইরিশ পাসপোর্টও আছে তার। জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট মৌসুমের বাইরে অনেকটা সময় তিনি আয়ারল্যান্ডেই কাটান। ২০২১ সালে তিনি প্রত্যাখ্যান করেন ক্রিকেট জিম্বাবুয়ের কেন্দ্রীয় চুক্তি। তখন থেকেই গুঞ্জনটা ছিল যে তিনি আয়ারল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে চান।

গত বছর তা খোলাসাই হয়ে যায়। ইংল্যান্ড সফরে আয়ারল্যান্ডের ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াডে রাখা হয় তাকে। এরপর বছরের শেষ দিকে জিম্বাবুয়ে সফর দিয়েই আয়ারল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে তার অভিষেক হবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। তবে আইরিশ নির্বাচকরা তখন একটু সময় নেন। অবশেষে বাংলাদেশ সফর দিয়ে শেষ হচ্ছে মুরের অপেক্ষা।
বাংলাদেশ সফরের জন্য তিন সংস্করণেই আয়ারল্যান্ডের দল ঘোষণা করা হয়েছে। মুর আছেন শুধু টেস্টেই। ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ের হয়ে দুটি টেস্ট খেলে সিলেটে অপরাজিত ৬৩ ও মিরপুরে ৮৩ রানের ইনিংস খেলেছিলেন মুর। ওই সফরের পর আর টেস্ট খেলা হয়ে ওঠেনি তার। এছাড়াও বাংলাদেশে তিনি খেলেছেন ৭টি ওয়ানডে ও ৪টি টি-টোয়েন্টি।

সব মিলিয়ে জিম্বাবুয়ের হয়ে ৮ টেস্ট, ৪৯ ওয়ানডে ও ২১টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন মুর। সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলেছেন ২০১৯ সালের অক্টোবরে, সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে। সবশেষ ওয়ানডে খেলেছেন তিনি ২০১৯ সালের জুলাইয়ে এখনকার দেশ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেই। এখনও অবশ্য তিনি জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলে যাচ্ছেন। গত মাসেও খেলেছেন বড় দৈর্ঘ্যের টুর্নামেন্ট লগান কাপে।

মুর ছাড়াও আয়ার‌ল্যান্ডের স্কোয়াডে নতুন মুখ ম্যাথু হামফ্রেজ। তিন সংস্করণের দলেই জায়গা পেয়েছেন ২০ বছর বয়সী এই বাঁহাতি স্পিনার। এখনও পর্যন্ত ৬টি লিস্ট ‘এ’ ও ৭টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অভিষেক হয়নি।

অভিজ্ঞ ওপেনার পল স্টার্লিং সীমিত ওভারের দুই স্কোয়াডে থাকলেও নেই টেস্টে। জশ লিটল আছেন শুধু ওয়ানডে দলে। পিএসএল ও আইপিএলে দল পাওয়া তরুণ বাঁহাতি পেসারকে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের জন্য ছেড়ে দিয়েছে বোর্ড। তিন সংস্করণেই দলকে নেতৃত্ব দেবেন অ্যান্ড্রু বালবার্নি, যিনি মাত্রই বিপিএল খেলে গেলেন খুলনা টাইগার্সের হয়ে।

এই সফর দিয়েই টেস্ট নেতৃত্বে অভিষেক হবে বালবার্নির। আয়ারল্যান্ড এখনও পর্যন্ত টেস্ট খেলেছে মোটে তিনটি। সবকটিতেই নেতৃত্ব দিয়েছেন উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড। আইরিশরা সবশেষ টেস্ট খেলেছে ২০১৯ সালের জুলাইয়ে। সেই ম্যাচের একাদশের ৮ জনই এবার নেই স্কোয়াডে। তাদের মধ্যে অবসর নিয়েছেন কয়েকজন, কেউ কেউ পাননি সুযোগ।

বাংলাদেশ সফরে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট খেলবে আয়ার‌ল্যান্ড। ১৫ মার্চ গা গরমের ম্যাচের পর ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচ ১৮, ২০ ও ২৩ মার্চ। গোটা সিরিজ হবে সিলেটে। এরপর টি-টোয়েন্টি সিরিজ হবে চট্টগ্রামে, ২৭, ২৯ ও ৩১ মার্চ। একমাত্র টেস্ট ম্যাচ ৪ এপ্রিল থেকে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে।

আয়ারল্যান্ড ওয়ানডে দল: অ্যান্ড্রু বালবার্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, কার্টিস ক্যাম্পার, গ্যারেথ ডেলানি, জর্জ ডকরেল, স্টিভেন ডোহেনি, গ্রাহাম হিউম, ম্যাথু হামফ্রেজ, জশ লিটল, অ্যান্ড্রু ম্যাকব্রাইন, ব্যারি ম্যাককার্থি, পল স্টার্লিং, হ্যারি টেক্টর, লর্কান টাকার, বেন হোয়াইট।

আয়ারল্যান্ড টি-টোয়েন্টি দল: অ্যান্ড্রু বালবার্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, কার্টিস ক্যাম্পার, গ্যারেথ ডেলানি, জর্জ ডকরেল, গ্রাহাম হিউম, ম্যাথু হামফ্রেজ, ব্যারি ম্যাককার্থি, কনর ওলফার্ট, পল স্টার্লিং, হ্যারি টেক্টর, লর্কান টাকার, বেন হোয়াইট, ক্রেইগ ইয়াং।

আয়ারল্যান্ড টেস্ট দল: অ্যান্ড্রু বালবার্নি (অধিনায়ক), মার্ক অ্যাডায়ার, কার্টিস ক্যাম্পার, মারি কমিন্স, জর্জ ডকরেল, গ্রাহাম হিউম, ম্যাথু হামফ্রেজ, অ্যান্ড্রু ম্যাকব্রাইন, ব্যারি ম্যাককার্থি, জেমস ম্যাককলাম, পিটার মুর, হ্যারি টেক্টর, লর্কান টাকার, বেন হোয়াইট।