Dhaka , Wednesday, 24 April 2024

১০ হলুদ কার্ডের ম্যাচে চেলসিকে হারাল ডর্টমুন্ড

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:06:15 am, Thursday, 16 February 2023
  • 29 বার

স্পোর্টস ডেস্ক: শুরুর বিবর্ণতা ঝেড়ে ফেলে দারুণ খেলল চেলসি। কিন্তু তাদের সামনে বাধ সাধল ক্রসবার, গোললাইন থেকেও ফিরল বল। মাঝে চমৎকার গোলে ব্যবধান গড়ে দিলেন করিম আদেইয়েমি। ইংলিশ দলটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালের পথে এক ধাপ এগিয়ে গেল বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

ডর্টমুন্ডের সিগনাল ইদুনা পার্কে বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ১-০ গোলে জিতেছে জার্মান দলটি। ম্যাচে চেলসির দাপটের প্রমাণ মেলে পরিসংখ্যানেও। গোলের জন্য তারা শট নেয় মোট ২১টি, যার ৮টি ছিল লক্ষ্যে। ডর্টমুন্ডের ১৪ শটের ২টি লক্ষ্যে ছিল। এই ম্যাচে দুই দলের খেলোয়াড়রা মিলে ১০টি হলুদ কার্ড দেখেন।

ষোড়শ মিনিটে রিস জেমসের ক্রসে লাফিয়ে উঠে হাত দিয়ে জালে বল পাঠিয়ে হলুদ কার্ড দেখেন চেলসি অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা। দুই মিনিট পর ভালো একটি সুযোগ পেয়ে বাইরে মারেন ডর্টমুন্ডের মারিয়াস উলফ। ৩১তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ হারান চেলসির জোয়াও ফেলিক্স। হাকিম জিয়াশের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে ভালো পজিশনে থেকে উড়িয়ে মারেন তরুণ পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। সাত মিনিট পর ভাগ্যের ফেরে গোল পায়নি চেলসি। আগুয়ান গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে কাই হার্ভাটজের নেওয়া শট ক্রসবারে লাগে।

দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে ডর্টমুন্ডের বক্সের বাইরে ফ্রি-কিক পায় চেলসি। জেমসের শট ঝাঁপিয়ে ফেরান গোলরক্ষক। ৬২তম মিনিটে জেমসের আরেকটি শটে বল ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান গ্রেগর কোবেল।
সেই কর্নার থেকেই ডর্টমুন্ডের এগিয়ে যাওয়া গোলের উৎসের শুরু। সিলভার হেড ক্লিয়ার করে রাফায়েল গেরেইরো বাড়ান আদেইয়েমিকে। নিজেদের অর্ধ থেকে বল ধরে এগিয়ে চেলসির এনসো ফের্নান্দেসের বাধা এড়িয়ে গোলরক্ষককে কাটিয়ে জাল খুঁজে নেন তরুণ জার্মান স্ট্রাইকার।

৭৮তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল চেলসি। রুবেন লফটাস-চিকের পাসে পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে কালিদু কলিবালির শট গোলরক্ষক আটকে দিলেও বল যাচ্ছিল জালে। গোললাইন থেকে ফেরান মিডফিল্ডার এমরে কান। নির্ধারিত সময়ের শেষ দিকে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে দুই দলের খেলোয়াড়রা। হলুদ কার্ড দেখে ম্যাসন মাউন্ট ও নিকোলাস সুলে।

পাঁচ মিনিট যোগ করা সময়ের শেষ মিনিটে আরেকটি দুর্দান্ত সেভে ডর্টমুন্ডের জয় নিশ্চিত করেন কোবেল। আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী মিডফিল্ডার ফের্নান্দেসের ডান পোস্টের ওপরের কোণায় নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে ফেরান তিনি। আগামী ৭ মার্চ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে হবে ফিরতি লেগ।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

১০ হলুদ কার্ডের ম্যাচে চেলসিকে হারাল ডর্টমুন্ড

আপডেট টাইম : 08:06:15 am, Thursday, 16 February 2023

স্পোর্টস ডেস্ক: শুরুর বিবর্ণতা ঝেড়ে ফেলে দারুণ খেলল চেলসি। কিন্তু তাদের সামনে বাধ সাধল ক্রসবার, গোললাইন থেকেও ফিরল বল। মাঝে চমৎকার গোলে ব্যবধান গড়ে দিলেন করিম আদেইয়েমি। ইংলিশ দলটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালের পথে এক ধাপ এগিয়ে গেল বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

ডর্টমুন্ডের সিগনাল ইদুনা পার্কে বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ১-০ গোলে জিতেছে জার্মান দলটি। ম্যাচে চেলসির দাপটের প্রমাণ মেলে পরিসংখ্যানেও। গোলের জন্য তারা শট নেয় মোট ২১টি, যার ৮টি ছিল লক্ষ্যে। ডর্টমুন্ডের ১৪ শটের ২টি লক্ষ্যে ছিল। এই ম্যাচে দুই দলের খেলোয়াড়রা মিলে ১০টি হলুদ কার্ড দেখেন।

ষোড়শ মিনিটে রিস জেমসের ক্রসে লাফিয়ে উঠে হাত দিয়ে জালে বল পাঠিয়ে হলুদ কার্ড দেখেন চেলসি অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা। দুই মিনিট পর ভালো একটি সুযোগ পেয়ে বাইরে মারেন ডর্টমুন্ডের মারিয়াস উলফ। ৩১তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ হারান চেলসির জোয়াও ফেলিক্স। হাকিম জিয়াশের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে ভালো পজিশনে থেকে উড়িয়ে মারেন তরুণ পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। সাত মিনিট পর ভাগ্যের ফেরে গোল পায়নি চেলসি। আগুয়ান গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে কাই হার্ভাটজের নেওয়া শট ক্রসবারে লাগে।

দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে ডর্টমুন্ডের বক্সের বাইরে ফ্রি-কিক পায় চেলসি। জেমসের শট ঝাঁপিয়ে ফেরান গোলরক্ষক। ৬২তম মিনিটে জেমসের আরেকটি শটে বল ক্রসবারের ওপর দিয়ে পাঠান গ্রেগর কোবেল।
সেই কর্নার থেকেই ডর্টমুন্ডের এগিয়ে যাওয়া গোলের উৎসের শুরু। সিলভার হেড ক্লিয়ার করে রাফায়েল গেরেইরো বাড়ান আদেইয়েমিকে। নিজেদের অর্ধ থেকে বল ধরে এগিয়ে চেলসির এনসো ফের্নান্দেসের বাধা এড়িয়ে গোলরক্ষককে কাটিয়ে জাল খুঁজে নেন তরুণ জার্মান স্ট্রাইকার।

৭৮তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল চেলসি। রুবেন লফটাস-চিকের পাসে পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে কালিদু কলিবালির শট গোলরক্ষক আটকে দিলেও বল যাচ্ছিল জালে। গোললাইন থেকে ফেরান মিডফিল্ডার এমরে কান। নির্ধারিত সময়ের শেষ দিকে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে দুই দলের খেলোয়াড়রা। হলুদ কার্ড দেখে ম্যাসন মাউন্ট ও নিকোলাস সুলে।

পাঁচ মিনিট যোগ করা সময়ের শেষ মিনিটে আরেকটি দুর্দান্ত সেভে ডর্টমুন্ডের জয় নিশ্চিত করেন কোবেল। আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী মিডফিল্ডার ফের্নান্দেসের ডান পোস্টের ওপরের কোণায় নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে ফেরান তিনি। আগামী ৭ মার্চ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে হবে ফিরতি লেগ।