Dhaka , Tuesday, 23 April 2024

মালদ্বীপে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:19:38 am, Wednesday, 8 March 2023
  • 29 বার

প্রবাস ডেস্ক: যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মালদ্বীপে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ হাইকমিশনের হলরুমে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা তাজুল ইসলাম। পরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে মিশনের তৃতীয় সচিব চন্দন কুমার সাহা ও অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (অ্যাকাউন্টস) শিরিন ফারজানা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাইকমিশনার রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ। আলোচনা পর্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মিশনের কাউন্সেলর (শ্রম) ও দূতালয় প্রধান মো. সোহেল পারভেজ । এরপর প্রবাসী বাংলাদেশিদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন নূরে আলম রিন্টু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৭ মার্চের দিক নির্দেশনাপূর্ণ অনন্য এ ভাষণ বাঙ্গালি জনগণকে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য অনুপ্রাণিত করেছিল। যার ফলশ্রুতিতে লাখ লাখ মানুষ প্রাণ বাজি রেখে স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিল। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অনুধাবন করে ইউনেস্কো ২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর এই ভাষণকে ওয়ার্ল্ড ডকুমেন্টারি হেরিটেজের মর্যাদা দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল মেমোরি অফ দা ওয়ার্ল্ডে অন্তর্ভুক্ত করেছে। তিনি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গঠনে সবাইকে একযোগে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান।

বক্তব্য শেষে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের ওপর নির্মিত একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

মালদ্বীপে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত

আপডেট টাইম : 08:19:38 am, Wednesday, 8 March 2023

প্রবাস ডেস্ক: যথাযোগ্য মর্যাদা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মালদ্বীপে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ হাইকমিশনের হলরুমে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা তাজুল ইসলাম। পরে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে মিশনের তৃতীয় সচিব চন্দন কুমার সাহা ও অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ অফিসার (অ্যাকাউন্টস) শিরিন ফারজানা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাইকমিশনার রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ। আলোচনা পর্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মিশনের কাউন্সেলর (শ্রম) ও দূতালয় প্রধান মো. সোহেল পারভেজ । এরপর প্রবাসী বাংলাদেশিদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন নূরে আলম রিন্টু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৭ মার্চের দিক নির্দেশনাপূর্ণ অনন্য এ ভাষণ বাঙ্গালি জনগণকে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য অনুপ্রাণিত করেছিল। যার ফলশ্রুতিতে লাখ লাখ মানুষ প্রাণ বাজি রেখে স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিল। বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অনুধাবন করে ইউনেস্কো ২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর এই ভাষণকে ওয়ার্ল্ড ডকুমেন্টারি হেরিটেজের মর্যাদা দিয়ে ইন্টারন্যাশনাল মেমোরি অফ দা ওয়ার্ল্ডে অন্তর্ভুক্ত করেছে। তিনি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গঠনে সবাইকে একযোগে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান।

বক্তব্য শেষে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের ওপর নির্মিত একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।