Dhaka , Tuesday, 23 April 2024

প্রবাসী বাবাকে ভিডিও কলে রেখে মেয়ের আত্মহত্যা

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:09:27 am, Thursday, 16 March 2023
  • 42 বার

নিউজ ডেস্ক: কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ১নং ইসলামপুর ইউনিয়নে প্রবাসী বাবাকে ভিডিও কলে সংযোগ রেখে নাদিরা সুলতানা রুমি নামের এক তরুণী (২৪) আত্মহত্যা করেছেন। তিনি প্রবাসী আবুল কালামের মেয়ে।

বুধবার সন্ধ্যায় তার বাড়ির রুম থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ইউনিয়নের উত্তর নাপিতখালি এলাকার প্রবাসী আবুল কালামের বাড়িতে।

খবর পেয়ে ঈদগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম কবিরের নির্দেশে এসআই মো. জুয়েল সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রুমির মরদেহ উদ্ধার করে।

ওসি বলেন, পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের প্রক্রিয়া চলছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি পেলে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

পরিবারের বরাত দিয়ে এসআই জুয়েল সরকার বলেন, ঘটনার আগ মুহূর্তে রুমি তার বাবার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলে সমস্যার কথা জানান। এক পর্যায়ে তার বাবা বিরক্তবোধ করে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। পুনরায় কল দিলে রিসিভ করে মোবাইল এক পাশে ফেলে রাখেন বাবা আবুল কালাম। অভিমান সহ্য করতে না পেরে বাড়ির রুমে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন মেয়ে।

পরে বাড়ির লোকজন দরজা ভেঙে প্রবেশ করে মরদেহ দেখতে পান। স্থানীয়দের মারফত খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে থানায় নিয়ে আসে। কোনো অভিযোগ না থাকায় বিনা ময়নাতদন্তের জন্য প্রক্রিয়া চালাচ্ছেন স্বজনরা।

রুমির পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৫ বছর আগে সামাজিকভাবে বিয়ে হয়েছিল রুমির। ৪ বছরের একটা সন্তানও রয়েছে। বিয়ের তিন বছর পর বিচ্ছেদ ঘটে। বিচ্ছেদের পর থেকে বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন রুমি।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

প্রবাসী বাবাকে ভিডিও কলে রেখে মেয়ের আত্মহত্যা

আপডেট টাইম : 08:09:27 am, Thursday, 16 March 2023

নিউজ ডেস্ক: কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ১নং ইসলামপুর ইউনিয়নে প্রবাসী বাবাকে ভিডিও কলে সংযোগ রেখে নাদিরা সুলতানা রুমি নামের এক তরুণী (২৪) আত্মহত্যা করেছেন। তিনি প্রবাসী আবুল কালামের মেয়ে।

বুধবার সন্ধ্যায় তার বাড়ির রুম থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ইউনিয়নের উত্তর নাপিতখালি এলাকার প্রবাসী আবুল কালামের বাড়িতে।

খবর পেয়ে ঈদগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম কবিরের নির্দেশে এসআই মো. জুয়েল সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রুমির মরদেহ উদ্ধার করে।

ওসি বলেন, পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের প্রক্রিয়া চলছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি পেলে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

পরিবারের বরাত দিয়ে এসআই জুয়েল সরকার বলেন, ঘটনার আগ মুহূর্তে রুমি তার বাবার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলে সমস্যার কথা জানান। এক পর্যায়ে তার বাবা বিরক্তবোধ করে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। পুনরায় কল দিলে রিসিভ করে মোবাইল এক পাশে ফেলে রাখেন বাবা আবুল কালাম। অভিমান সহ্য করতে না পেরে বাড়ির রুমে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন মেয়ে।

পরে বাড়ির লোকজন দরজা ভেঙে প্রবেশ করে মরদেহ দেখতে পান। স্থানীয়দের মারফত খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে থানায় নিয়ে আসে। কোনো অভিযোগ না থাকায় বিনা ময়নাতদন্তের জন্য প্রক্রিয়া চালাচ্ছেন স্বজনরা।

রুমির পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৫ বছর আগে সামাজিকভাবে বিয়ে হয়েছিল রুমির। ৪ বছরের একটা সন্তানও রয়েছে। বিয়ের তিন বছর পর বিচ্ছেদ ঘটে। বিচ্ছেদের পর থেকে বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন রুমি।