Dhaka , Monday, 17 June 2024

ইউরোপে ফের চালু হচ্ছে নেক মানি ট্রান্সফার

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 03:53:09 pm, Friday, 17 March 2023
  • 40 বার

প্রবাস ডেস্ক: প্রায় ৬০ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি বসবাস করেন দক্ষিণ-পশ্চিম ইউরোপের উৎসবের দেশ (ফিয়েস্তা ও সিয়েস্তার দেশ) স্পেনে। উৎসব স্প্যানিশদের চলমান জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ওতপ্রোতভাবে। প্রাচীন সভ্যতার চিত্রকর্ম ও সাহিত্য, রৌদ্রোজ্জ্বল জলবায়ু, সমুদ্র সৈকত এবং ঐতিহাসিক নিদর্শনগুলোর জন্য পর্যটকদের পছন্দের শীর্ষ এই দেশে প্রবাসীরা রয়েছেন ভালো অবস্থানে। ইউরোপে বাংলাদেশিদের বসবাসের দিক থেকে স্পেনের অবস্থান দ্বিতীয়। তাই বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রেরণে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেন বেরিয়ে যাওয়ার ফলে স্পেনসহ পুরো ইউরোপ থেকে রেমিট্যান্স প্রেরণকারী বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ হয়ে যায় ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বেধে দেওয়া নিয়মের কারণে।

প্রায় পুরো ইউরোপে রেমিট্যান্স ব্যবসাটিই হাতছাড়া হয়ে যায় বাংলাদেশিদের। বন্দ হয়ে যায় অনেক বাংলাদেশি রেমিট্যান্স প্রেরণকারী ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। রেমিট্যান্স ব্যবসা চলে যায় ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন, মানিগ্রাম, স্মল ওয়ার্ল্ড ও রিয়ার মতো বিশ্বের শীর্ষ ও রাঘব বোয়াল মানি ট্রান্সফার এজেন্সিগুলোর কব্জায়। ফলে কম খরচে দেশে অর্থ প্রেরণের সুযোগ থেকে একদিকে যেমন বঞ্চিত হন প্রবাসী বাংলাদেশিরা, ঠিক তেমনি দেশের বৈদেশিক মুদ্রা প্রাপ্তির পরিমাণও হ্রাস প্রায়। আর এই সুযোগটি কাজে লাগিয়ে প্রবাসীদের কাছে গিয়ে নানা উপায়ে উদ্বুদ্ধ করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে কিছু সংখ্যক হুন্ডি কারবারিরা।

এজন্য গত বছর থেকে ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে টাকা পাঠাতে মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস বিভিন্ন সচেতনতামূলক সভা-সেমিনার ও কর্মসূচি করে যাচ্ছে। দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোকে উৎসাহ দিতে চলতি বছর আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসে ওয়েজ আর্নারস কল্যাণের মাধ্যমে সরকারিভাবে প্রবাসীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করার পাশাপাশি, স্পেন থেকে দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর জন্য পুরস্কা ও পদক চালু করা হয়। তারপরও রেমিট্যান্স প্রেরণের পরিমাণ প্রত্যাশিত অনুপাতে হয়নি।

সম্প্রতি ১২ মার্চ স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে একটি রেস্তোরাঁর হলরুমে ‘বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে ব্যাংকিং চ্যানেলে অর্থ প্রেরনের সুবিধা’ শীর্ষক এক সেমিনার হয়। বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় এনআরবি ব্যাংক ও বহিঃবিশ্বে বাংলাদেশিদের পরিচালিত আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান ‘নেক মানি ট্রান্সফার লিমিটেড’র উদ্দ্যোগে হয় এই সেমিনার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ এনডিসি। তিনি দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধিতে প্রবাসীদের অবদানের প্রশংসা করে বলেন, বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স প্রেরণের দ্রুত এবং বিস্বস্থ মাধ্যম ‘নেক মনি ট্রান্সফার’, তাদের কার্যক্রম চমৎকারভাবে ফিরে আসা দেশ এবং প্রবাসীদের জন্য ইতিবাচক।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, গত সাত-আট বছরে থেকে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে প্রবাসী আয় প্রবৃদ্ধির দিকে যদি তাকাই, সে ক্ষেত্রে কিন্তু বাংলাদেশ এগিয়ে। এটা আমাদের বড় একটি শক্তির জায়গা। এছাড়া ডিজিটাল মাধ্যমে প্রবাসী আয় আসার ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ পিছিয়ে নেই। তবে আমাদের যা দরকার, সে তুলনায় আমরা কম পাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, প্রতিনিয়ত সেবার মান মূল্যায়ন করছি এবং প্রবাসী কল্যাণে নতুন নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছি। প্রবাসীর সঙ্গে দূতাবাসের সহজ যোগাযোগ ও সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশের স্মার্ট দূতাবাস বাস্তবায়ন করতে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছি। এসব বাস্তবায়নে প্রবাসীদের আন্তরিকতা ও সহযোগিতা প্রয়োজন।

নেক (এনইসি) মানি ট্রান্সফার লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও সিইও ইকরাম ফরাজীর (সিআইপি) সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন এনসিসি ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. আবুল বাশার। বক্তব্য দেন এনসিসি ব্যাংক লিমিটেডের ডিরেক্টর এস এম আবু মহসিন, মো. মইনুদ্দীন, ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. মামদুদুর রশিদ, ইভিপি অ্যান্ড হেড অব রেমিট্যান্স এনআরবি ডিভিশন মো. মাহফুজুর রহমান, বাংলাদেশ দূতাবাস স্পেনের কাউন্সিলর (লেবার উইং) মোহতাসিমুল ইসলাম, বাংলাদেশ মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলম মজুমদার, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সভাপতি আল মামুন।

অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্যে মানি ট্রান্সফার লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও সিইও ইকরাম ফরাজী সিআইপি নিজেকে প্রবাসী উল্লেখ করে বলেন, প্রবাসীদের দুঃখ-কষ্ট, হাসি-কান্না সব কিছু আমার জানা। এজন্য আমাদের সবার নিরলস চেষ্টা, পরিশ্রম, সততা আর ভিন্নধর্মী চিন্তাধারাকে কাজে লাগিয়ে নেক মনি ট্র্যান্সফার স্মার্ট ব্যাংকিং এবং আরও উন্নত সুবিধা নিয়ে ইউরোপে আমাদের যাত্রা হচ্ছে।

নেক মানি ট্রান্সফার লিমিটেড স্পেনের কান্ট্রি ডিরেক্টর রবিন মাহমুদের তত্ত্বাবধানে সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি বাংলাদেশ মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আল আমিন মিয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দর, অ্যাসোসিয়েসন ভালিয়ান্তে বাংলার সভাপতি মো. ফজলে এলাহি, সাধারন সম্পাদক রমিজ উদ্দিন, ব্যাবসায়ী মিল্টন ভূইয়া কচি, আব্দুল কাইয়ূম মাসুক, ব্যবসায়ী একরামুজ্জামান কিরন, কাদের ঢালী, রাসেল দেওয়ান, বদরুল কামালী প্রমুখ।

সেমিনারে এনসিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. আবুল বাশার প্রবাসীদের এনআইডি ছাড়া শুধু পাসপোর্ট দিয়ে একাউন্ট ওপেনসহ বেশ কিছু তথ্য তুলে ধরেন।

এছাড়া বৈধপথে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স আদান-প্রদানে উৎসাহিত করতে নেক মনি ট্র্যান্সফার ও এনসিসি ব্যাংক তাদের রেমিট্যান্স সেবা গ্রহণকারী সব গ্রাহককদের জন্য বিমান টিকিটসহ আকর্ষণীয় পুরস্কার দেন।

সেমিনারে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর ক্ষেত্রে বিভিন্ন সমস্যার কথা বলে সুপারিশ তুলে ধরেন বক্তারা। রাষ্ট্রদূত ও নেক মনি ট্র্যান্সফারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা তাদের সমস্যা ও প্রস্তাব শোনেন এবং এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানায় দূতাবাস। এছাড়া স্পেনে বসবাসরত ৭০০ প্রবাসীর ই-পাসপোর্ট নবায়ন না হওয়ার ফলে তাদের বৈধতা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে উল্লেখ করে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করেন বক্তারা।

নেক মানি ট্রান্সফার লিমিটেড বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় ৯০টি দেশে প্রবাসীদের অর্থ বৈধভাবে প্রেরণ করে সপ্তম বার সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স সংগ্রহকারী হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ ও ২০২০ পেয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

ইউরোপে ফের চালু হচ্ছে নেক মানি ট্রান্সফার

আপডেট টাইম : 03:53:09 pm, Friday, 17 March 2023

প্রবাস ডেস্ক: প্রায় ৬০ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশি বসবাস করেন দক্ষিণ-পশ্চিম ইউরোপের উৎসবের দেশ (ফিয়েস্তা ও সিয়েস্তার দেশ) স্পেনে। উৎসব স্প্যানিশদের চলমান জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ওতপ্রোতভাবে। প্রাচীন সভ্যতার চিত্রকর্ম ও সাহিত্য, রৌদ্রোজ্জ্বল জলবায়ু, সমুদ্র সৈকত এবং ঐতিহাসিক নিদর্শনগুলোর জন্য পর্যটকদের পছন্দের শীর্ষ এই দেশে প্রবাসীরা রয়েছেন ভালো অবস্থানে। ইউরোপে বাংলাদেশিদের বসবাসের দিক থেকে স্পেনের অবস্থান দ্বিতীয়। তাই বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রেরণে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেন বেরিয়ে যাওয়ার ফলে স্পেনসহ পুরো ইউরোপ থেকে রেমিট্যান্স প্রেরণকারী বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ হয়ে যায় ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বেধে দেওয়া নিয়মের কারণে।

প্রায় পুরো ইউরোপে রেমিট্যান্স ব্যবসাটিই হাতছাড়া হয়ে যায় বাংলাদেশিদের। বন্দ হয়ে যায় অনেক বাংলাদেশি রেমিট্যান্স প্রেরণকারী ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। রেমিট্যান্স ব্যবসা চলে যায় ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন, মানিগ্রাম, স্মল ওয়ার্ল্ড ও রিয়ার মতো বিশ্বের শীর্ষ ও রাঘব বোয়াল মানি ট্রান্সফার এজেন্সিগুলোর কব্জায়। ফলে কম খরচে দেশে অর্থ প্রেরণের সুযোগ থেকে একদিকে যেমন বঞ্চিত হন প্রবাসী বাংলাদেশিরা, ঠিক তেমনি দেশের বৈদেশিক মুদ্রা প্রাপ্তির পরিমাণও হ্রাস প্রায়। আর এই সুযোগটি কাজে লাগিয়ে প্রবাসীদের কাছে গিয়ে নানা উপায়ে উদ্বুদ্ধ করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে কিছু সংখ্যক হুন্ডি কারবারিরা।

এজন্য গত বছর থেকে ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে টাকা পাঠাতে মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস বিভিন্ন সচেতনতামূলক সভা-সেমিনার ও কর্মসূচি করে যাচ্ছে। দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোকে উৎসাহ দিতে চলতি বছর আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসে ওয়েজ আর্নারস কল্যাণের মাধ্যমে সরকারিভাবে প্রবাসীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করার পাশাপাশি, স্পেন থেকে দেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর জন্য পুরস্কা ও পদক চালু করা হয়। তারপরও রেমিট্যান্স প্রেরণের পরিমাণ প্রত্যাশিত অনুপাতে হয়নি।

সম্প্রতি ১২ মার্চ স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে একটি রেস্তোরাঁর হলরুমে ‘বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে ব্যাংকিং চ্যানেলে অর্থ প্রেরনের সুবিধা’ শীর্ষক এক সেমিনার হয়। বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় এনআরবি ব্যাংক ও বহিঃবিশ্বে বাংলাদেশিদের পরিচালিত আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান ‘নেক মানি ট্রান্সফার লিমিটেড’র উদ্দ্যোগে হয় এই সেমিনার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ এনডিসি। তিনি দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধিতে প্রবাসীদের অবদানের প্রশংসা করে বলেন, বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স প্রেরণের দ্রুত এবং বিস্বস্থ মাধ্যম ‘নেক মনি ট্রান্সফার’, তাদের কার্যক্রম চমৎকারভাবে ফিরে আসা দেশ এবং প্রবাসীদের জন্য ইতিবাচক।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, গত সাত-আট বছরে থেকে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে প্রবাসী আয় প্রবৃদ্ধির দিকে যদি তাকাই, সে ক্ষেত্রে কিন্তু বাংলাদেশ এগিয়ে। এটা আমাদের বড় একটি শক্তির জায়গা। এছাড়া ডিজিটাল মাধ্যমে প্রবাসী আয় আসার ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ পিছিয়ে নেই। তবে আমাদের যা দরকার, সে তুলনায় আমরা কম পাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, প্রতিনিয়ত সেবার মান মূল্যায়ন করছি এবং প্রবাসী কল্যাণে নতুন নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছি। প্রবাসীর সঙ্গে দূতাবাসের সহজ যোগাযোগ ও সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশের স্মার্ট দূতাবাস বাস্তবায়ন করতে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছি। এসব বাস্তবায়নে প্রবাসীদের আন্তরিকতা ও সহযোগিতা প্রয়োজন।

নেক (এনইসি) মানি ট্রান্সফার লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও সিইও ইকরাম ফরাজীর (সিআইপি) সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান আলোচক ছিলেন এনসিসি ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. আবুল বাশার। বক্তব্য দেন এনসিসি ব্যাংক লিমিটেডের ডিরেক্টর এস এম আবু মহসিন, মো. মইনুদ্দীন, ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. মামদুদুর রশিদ, ইভিপি অ্যান্ড হেড অব রেমিট্যান্স এনআরবি ডিভিশন মো. মাহফুজুর রহমান, বাংলাদেশ দূতাবাস স্পেনের কাউন্সিলর (লেবার উইং) মোহতাসিমুল ইসলাম, বাংলাদেশ মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি খোরশেদ আলম মজুমদার, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সভাপতি আল মামুন।

অনুষ্ঠানের সূচনা বক্তব্যে মানি ট্রান্সফার লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও সিইও ইকরাম ফরাজী সিআইপি নিজেকে প্রবাসী উল্লেখ করে বলেন, প্রবাসীদের দুঃখ-কষ্ট, হাসি-কান্না সব কিছু আমার জানা। এজন্য আমাদের সবার নিরলস চেষ্টা, পরিশ্রম, সততা আর ভিন্নধর্মী চিন্তাধারাকে কাজে লাগিয়ে নেক মনি ট্র্যান্সফার স্মার্ট ব্যাংকিং এবং আরও উন্নত সুবিধা নিয়ে ইউরোপে আমাদের যাত্রা হচ্ছে।

নেক মানি ট্রান্সফার লিমিটেড স্পেনের কান্ট্রি ডিরেক্টর রবিন মাহমুদের তত্ত্বাবধানে সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি বাংলাদেশ মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আল আমিন মিয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দর, অ্যাসোসিয়েসন ভালিয়ান্তে বাংলার সভাপতি মো. ফজলে এলাহি, সাধারন সম্পাদক রমিজ উদ্দিন, ব্যাবসায়ী মিল্টন ভূইয়া কচি, আব্দুল কাইয়ূম মাসুক, ব্যবসায়ী একরামুজ্জামান কিরন, কাদের ঢালী, রাসেল দেওয়ান, বদরুল কামালী প্রমুখ।

সেমিনারে এনসিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. আবুল বাশার প্রবাসীদের এনআইডি ছাড়া শুধু পাসপোর্ট দিয়ে একাউন্ট ওপেনসহ বেশ কিছু তথ্য তুলে ধরেন।

এছাড়া বৈধপথে ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স আদান-প্রদানে উৎসাহিত করতে নেক মনি ট্র্যান্সফার ও এনসিসি ব্যাংক তাদের রেমিট্যান্স সেবা গ্রহণকারী সব গ্রাহককদের জন্য বিমান টিকিটসহ আকর্ষণীয় পুরস্কার দেন।

সেমিনারে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স পাঠানোর ক্ষেত্রে বিভিন্ন সমস্যার কথা বলে সুপারিশ তুলে ধরেন বক্তারা। রাষ্ট্রদূত ও নেক মনি ট্র্যান্সফারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা তাদের সমস্যা ও প্রস্তাব শোনেন এবং এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানায় দূতাবাস। এছাড়া স্পেনে বসবাসরত ৭০০ প্রবাসীর ই-পাসপোর্ট নবায়ন না হওয়ার ফলে তাদের বৈধতা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে উল্লেখ করে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করেন বক্তারা।

নেক মানি ট্রান্সফার লিমিটেড বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় ৯০টি দেশে প্রবাসীদের অর্থ বৈধভাবে প্রেরণ করে সপ্তম বার সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স সংগ্রহকারী হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকের রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ ও ২০২০ পেয়েছে।