Dhaka , Friday, 23 February 2024
শিরোনাম :
চোখ লাফানোও হতে পারে মারাত্মক অসুখ মেক্সিকো সিটিতে রবীন্দ্র-নজরুল জয়ন্তী রাস্তা প্রশস্ত করতে ইরাকে ভাঙা হল তিনশ’ বছরের পুরনো মিনার, চারিদিকে নিন্দা অবৈধ অভিবাসীদের ঠেকাতে তিউনিসিয়া-ইইউ সমঝোতা শস্য চুক্তি নিয়ে অনিশ্চয়তা, ইউক্রেন ছাড়ল শেষ শস্যবাহী জাহাজ ফ্রাঙ্কফুর্টে সান বাঁধানো লেকের ধারে জমে উঠেছিল প্রবাসীদের ঈদ উৎসব দশ মাস পর আবারও রাস্তায় ইরানের বিতর্কিত ‘নীতি পুলিশ’ বার্সেলোনায় ঐতিহ্যবাহী ‘বাংলার মেলা’ মার্কিন গুচ্ছ বোমা ব্যবহার করলেই ইউক্রেনের ‘সর্বনাশ’, পুতিনের হুঁশিয়ারি ফ্রাঙ্কফুর্টে বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রবাসীদের কনস্যুলার সেবা প্রদান কর্মসূচি পালিত

পর্তুগালে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 02:00:00 pm, Saturday, 18 March 2023
  • 41 বার

প্রবাস ডেস্ক: পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে যথাযোগ্য মর্যাদায় এবং বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদ্‌যাপন করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষ্যে শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ ও বঙ্গবন্ধু শীর্ষক এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

দূতাবাসের প্রথম সচিব আলমগীর হোসেনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান ও দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও পর্তুগালে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

আলোচনা সভার শুরুতেই রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে পাঠ করে শুনানো হয়।

সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ এবং শিশু দিবসের বিভিন্ন তাৎপর্য তুলে ধরেন। তাছাড়া বঙ্গবন্ধুর জীবন নিয়ে অ্যানিমেশন ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ শিশুদের মাঝে উপস্থাপন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গঠনের অংশীদার হওয়ার জন্য সকলকে উদ্বুদ্ধ করার আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান।

আলোচনা সভা শেষে শিশুদেরকে সঙ্গে নিয়ে রাষ্ট্রদূত কেক কাটেন এবং চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল শিশুদের মাঝে উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। তাছাড়া গত মাসে বাংলাদেশে রেমিটেন্স প্রেরণের অবদান হিসেবে নির্বাচিত ব্যক্তিদের মাঝে উপহার ও সম্মাননা প্রদান করা হয়। সব শেষে দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

চোখ লাফানোও হতে পারে মারাত্মক অসুখ

পর্তুগালে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন

আপডেট টাইম : 02:00:00 pm, Saturday, 18 March 2023

প্রবাস ডেস্ক: পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে যথাযোগ্য মর্যাদায় এবং বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) বাংলাদেশ দূতাবাস প্রাঙ্গণে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদ্‌যাপন করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষ্যে শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ ও বঙ্গবন্ধু শীর্ষক এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

দূতাবাসের প্রথম সচিব আলমগীর হোসেনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান ও দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও পর্তুগালে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

আলোচনা সভার শুরুতেই রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে পাঠ করে শুনানো হয়।

সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ এবং শিশু দিবসের বিভিন্ন তাৎপর্য তুলে ধরেন। তাছাড়া বঙ্গবন্ধুর জীবন নিয়ে অ্যানিমেশন ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ শিশুদের মাঝে উপস্থাপন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গঠনের অংশীদার হওয়ার জন্য সকলকে উদ্বুদ্ধ করার আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত তারিক আহসান।

আলোচনা সভা শেষে শিশুদেরকে সঙ্গে নিয়ে রাষ্ট্রদূত কেক কাটেন এবং চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল শিশুদের মাঝে উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। তাছাড়া গত মাসে বাংলাদেশে রেমিটেন্স প্রেরণের অবদান হিসেবে নির্বাচিত ব্যক্তিদের মাঝে উপহার ও সম্মাননা প্রদান করা হয়। সব শেষে দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।