Dhaka , Saturday, 13 April 2024

নিউইয়র্কে হয়ে গেলো ডায়াসপোরা চলচ্চিত্র উৎসব

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:29:23 am, Thursday, 23 March 2023
  • 31 বার

প্রবাস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। বাংলাদেশ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, নেপাল ও মেক্সিকোর মোট সাতটি চলচ্চিত্র এই উৎসবে প্রদর্শিত হয়। ব্রঙ্কসের গোল্ডেন প্যালেস মিলনায়তনে বসে প্রথমবারের মতো এই চলচ্চিত্র উৎসব। ‘ফিল্ম উইদাউট বর্ডার’ এই শ্লোগানে চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করে ডায়াসপোরা।

চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী পর্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ও শিল্পী তাজুল ইমাম, সাপ্তাহিক বাঙালি পত্রিকার সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, ভাস্কর আখতার আহমেদ রাশা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ওবায়দুল্লাহ মামুন, বাচিক শিল্পী ক্লারা রোজারিও, সাংবাদিক ইব্রাহীম চৌধুরী, লেখক ও নির্মাতা শামীম আল আমিন। এ ছাড়া বাংলাদেশ থেকে জুমের মাধ্যমে যুক্ত হন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা ড. সাজ্জাদ বকুল। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধি জোয়ী’র সঞ্চলানায় এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান প্রতাপ দাস, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এজাজ আলম, উৎসব পরিচালক রওশন আরা নিপা। উপস্থিত ছিলেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর ইয়াকুব আলী মিঠুসহ অনেকে। নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধিদের পক্ষে কথা বলে সেজান। গোটা আয়োজনটির উপদেষ্টা ছিলেন সাংবাদিক, গবেষক ও নির্মাতা সাগর লোহানী। আয়োজনে সহায়তা করে গোল্ডেন প্যালেস।

অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে শামীম আল আমিনের পরিচালনায় নির্মিত ‘স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো’, রওশন আরা নিপার পরিচালনায় নির্মিত ‘জননী’, সাগর লোহানীর পরিচালনায় নির্মিত ‘আমি বিজয় এনেছি’, ড. সাজ্জাদ বকুলের পরিচালনায় নির্মিত ‘দাবানল’, রহমান লেনিনের পরিচালনায় নির্মিত মনফড়িং, নেপালী পরিচালক দীপক রনিয়ার নির্মিত ‘ফোর নাইটস’ এবং সিসিলিয়া লিনের পরিচালনায় নির্মিত ‘পাগপাপা আলম, টু উইশ ইউ ওয়েল, সো ইউ নো’।

উৎসবের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্ব ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। বিশেষ করে প্রতিটি চলচ্চিত্র প্রদর্শনের পর উপস্থিত দর্শক স্রোতারা প্রশ্ন ও মন্তব্য করার সুযোগ পেয়েছেন। বিশেষ করে উপস্থিত নির্মাতারা তাদের প্রশ্নের উত্তর দেন। এর মধ্য দিয়ে গোটা আয়োজনটি হয়ে ওঠে অংশগ্রহণমূলক। যা সবার প্রশংসা কুড়ায়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

নিউইয়র্কে হয়ে গেলো ডায়াসপোরা চলচ্চিত্র উৎসব

আপডেট টাইম : 08:29:23 am, Thursday, 23 March 2023

প্রবাস ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। বাংলাদেশ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, নেপাল ও মেক্সিকোর মোট সাতটি চলচ্চিত্র এই উৎসবে প্রদর্শিত হয়। ব্রঙ্কসের গোল্ডেন প্যালেস মিলনায়তনে বসে প্রথমবারের মতো এই চলচ্চিত্র উৎসব। ‘ফিল্ম উইদাউট বর্ডার’ এই শ্লোগানে চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করে ডায়াসপোরা।

চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী পর্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা ও শিল্পী তাজুল ইমাম, সাপ্তাহিক বাঙালি পত্রিকার সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, ভাস্কর আখতার আহমেদ রাশা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ওবায়দুল্লাহ মামুন, বাচিক শিল্পী ক্লারা রোজারিও, সাংবাদিক ইব্রাহীম চৌধুরী, লেখক ও নির্মাতা শামীম আল আমিন। এ ছাড়া বাংলাদেশ থেকে জুমের মাধ্যমে যুক্ত হন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা ড. সাজ্জাদ বকুল। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধি জোয়ী’র সঞ্চলানায় এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান প্রতাপ দাস, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এজাজ আলম, উৎসব পরিচালক রওশন আরা নিপা। উপস্থিত ছিলেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টর ইয়াকুব আলী মিঠুসহ অনেকে। নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধিদের পক্ষে কথা বলে সেজান। গোটা আয়োজনটির উপদেষ্টা ছিলেন সাংবাদিক, গবেষক ও নির্মাতা সাগর লোহানী। আয়োজনে সহায়তা করে গোল্ডেন প্যালেস।

অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে শামীম আল আমিনের পরিচালনায় নির্মিত ‘স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো’, রওশন আরা নিপার পরিচালনায় নির্মিত ‘জননী’, সাগর লোহানীর পরিচালনায় নির্মিত ‘আমি বিজয় এনেছি’, ড. সাজ্জাদ বকুলের পরিচালনায় নির্মিত ‘দাবানল’, রহমান লেনিনের পরিচালনায় নির্মিত মনফড়িং, নেপালী পরিচালক দীপক রনিয়ার নির্মিত ‘ফোর নাইটস’ এবং সিসিলিয়া লিনের পরিচালনায় নির্মিত ‘পাগপাপা আলম, টু উইশ ইউ ওয়েল, সো ইউ নো’।

উৎসবের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্ব ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। বিশেষ করে প্রতিটি চলচ্চিত্র প্রদর্শনের পর উপস্থিত দর্শক স্রোতারা প্রশ্ন ও মন্তব্য করার সুযোগ পেয়েছেন। বিশেষ করে উপস্থিত নির্মাতারা তাদের প্রশ্নের উত্তর দেন। এর মধ্য দিয়ে গোটা আয়োজনটি হয়ে ওঠে অংশগ্রহণমূলক। যা সবার প্রশংসা কুড়ায়।