Dhaka , Saturday, 3 June 2023

সিকিমে তুষারধসে ৭ জনের মৃত্যু

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:13:12 am, Wednesday, 5 April 2023
  • 24 বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের সিকিমের নাথু লা পর্বত গিরিপথের কাছে তুষারধসে শিশু ও মহিলাসহ সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও অনেকে তুষার নিচে আটকা পড়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ১০ মিনিট নাগাদ গ্যাংটক থেকে নাথু লা যাওয়ার পথে ১৫ মাইলে হঠাৎই তুষারধস নেমে আসে।

ভারতীয় সেনাবাহিনী জানিয়েছে, ওই সময় ৫-৬টি গাড়ি বিপর্যয়ের কবলে পড়ে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, ২০ থেকে ৩০ জন পর্যটক তুষারধসের নিচে চাপা পড়েন। এদের মধ্যে সাত জন পর্যটকের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। স্থানীয় সময় বিকেল ৪টার দিকে ২৩ পর্যটককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাদের সেনার বেস ক্যাম্পে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

উদ্ধারকাজে সেনাবাহিনী, সিকিম পুলিশ, সিকিমের ট্র্যাভেল অ্যাসোসিয়েশন ও পর্যটন দফতর নিয়োজিত রয়েছে।পাশাপাশি দু’দিকেই রাস্তা বন্ধ। এক প্রান্তে ৩৫০ অন্য প্রান্তে ৪৫০ জনের মতো পর্যটক আটকে রয়েছেন বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ২২ জন পর্যটককে উদ্ধার করা হয়েছে। ৮০টি গাড়িকেও উদ্ধার করা হয়েছে। তবে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে সেনা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে টুইটারে লিখেছেন, ‘সিকিমে তুষারধসে ব্যথিত। যারা তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন তাদের প্রতি সমবেদনা। আমি আশা করি আহতরা শিগগিরই সুস্থ হয়ে উঠবে। উদ্ধার অভিযান চলছে এবং ক্ষতিগ্রস্তদের সম্ভাব্য সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।’

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

সিকিমে তুষারধসে ৭ জনের মৃত্যু

আপডেট টাইম : 08:13:12 am, Wednesday, 5 April 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের সিকিমের নাথু লা পর্বত গিরিপথের কাছে তুষারধসে শিশু ও মহিলাসহ সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও অনেকে তুষার নিচে আটকা পড়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ১০ মিনিট নাগাদ গ্যাংটক থেকে নাথু লা যাওয়ার পথে ১৫ মাইলে হঠাৎই তুষারধস নেমে আসে।

ভারতীয় সেনাবাহিনী জানিয়েছে, ওই সময় ৫-৬টি গাড়ি বিপর্যয়ের কবলে পড়ে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, ২০ থেকে ৩০ জন পর্যটক তুষারধসের নিচে চাপা পড়েন। এদের মধ্যে সাত জন পর্যটকের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। স্থানীয় সময় বিকেল ৪টার দিকে ২৩ পর্যটককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাদের সেনার বেস ক্যাম্পে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

উদ্ধারকাজে সেনাবাহিনী, সিকিম পুলিশ, সিকিমের ট্র্যাভেল অ্যাসোসিয়েশন ও পর্যটন দফতর নিয়োজিত রয়েছে।পাশাপাশি দু’দিকেই রাস্তা বন্ধ। এক প্রান্তে ৩৫০ অন্য প্রান্তে ৪৫০ জনের মতো পর্যটক আটকে রয়েছেন বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ২২ জন পর্যটককে উদ্ধার করা হয়েছে। ৮০টি গাড়িকেও উদ্ধার করা হয়েছে। তবে মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে সেনা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে টুইটারে লিখেছেন, ‘সিকিমে তুষারধসে ব্যথিত। যারা তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন তাদের প্রতি সমবেদনা। আমি আশা করি আহতরা শিগগিরই সুস্থ হয়ে উঠবে। উদ্ধার অভিযান চলছে এবং ক্ষতিগ্রস্তদের সম্ভাব্য সব ধরনের সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।’