Dhaka , Thursday, 25 April 2024

মালয়েশিয়ায় ২২৬ বাংলাদেশি ও নেপালি শ্রমিক উদ্ধার

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:30:18 am, Tuesday, 11 April 2023
  • 37 বার

মালয়েশিয়া ডেস্ক: মালয়েশিয়ায় একটি ট্রানজিট হোম থেকে ২২৬ বাংলাদেশি ও নেপালি শ্রমিককে উদ্ধার করেছে দেশটির শ্রম বিভাগ। সোমবার (১০ এপ্রিল) সেলাঙ্গর রাজ্যের বান্ডারবারু নিলাই থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার ২২৬ জনের মধ্যে বাংলাদেশি কতজন তা উল্লেখ করা হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে দেড়শোর বেশি বাংলাদেশি রয়েছেন। উদ্ধার শ্রমিকদের বয়স ২০ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।

উদ্ধারের পর দেশটির মানবসম্পদমন্ত্রী ভি শিবকুমার বলেছেন, তিনটি পরিচ্ছন্নতাকারী প্রতিষ্ঠান ও একটি উৎপাদনকারী কোম্পানির জন্য এসব শ্রমিককে মালয়েশিয়ায় আনা হয়। তাদের ৪০ দিন ধরে ট্রানজিট হোমে অস্থায়ীভাবে রাখা হয়েছে। শ্রমিকদের কেউ কেউ এখনও প্রতিশ্রুত কাজ খুঁজে পাননি।

তিনি বলেন, ট্রানজিট হোমে নোংরা পরিবেশে শ্রমিকদের রাখা হয়েছিল যা খুবই হতাশাজনক। তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সুবিধাজনক স্থানে রাখা হয়েছে। তাদের জন্য নতুন নিয়োগকর্তা খুঁজে বের করা হবে।

ভি শিবকুমার আরও বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের দেশে আনার আগে কোম্পানিগুলোকে অবশ্যই তাদের চাকরির সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। জড়িত চার কোম্পানির বিরুদ্ধে চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার (লেবার) নাজমুছ সাদাত সেলিম বলেন, উদ্ধার বাংলাদেশি শ্রমিকদের বাসস্থান ও চাকরি নিশ্চিত করা হবে। তাদের দেখভাল করছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। হাইকমিশনও কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

মালয়েশিয়ায় ২২৬ বাংলাদেশি ও নেপালি শ্রমিক উদ্ধার

আপডেট টাইম : 08:30:18 am, Tuesday, 11 April 2023

মালয়েশিয়া ডেস্ক: মালয়েশিয়ায় একটি ট্রানজিট হোম থেকে ২২৬ বাংলাদেশি ও নেপালি শ্রমিককে উদ্ধার করেছে দেশটির শ্রম বিভাগ। সোমবার (১০ এপ্রিল) সেলাঙ্গর রাজ্যের বান্ডারবারু নিলাই থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার ২২৬ জনের মধ্যে বাংলাদেশি কতজন তা উল্লেখ করা হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে দেড়শোর বেশি বাংলাদেশি রয়েছেন। উদ্ধার শ্রমিকদের বয়স ২০ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।

উদ্ধারের পর দেশটির মানবসম্পদমন্ত্রী ভি শিবকুমার বলেছেন, তিনটি পরিচ্ছন্নতাকারী প্রতিষ্ঠান ও একটি উৎপাদনকারী কোম্পানির জন্য এসব শ্রমিককে মালয়েশিয়ায় আনা হয়। তাদের ৪০ দিন ধরে ট্রানজিট হোমে অস্থায়ীভাবে রাখা হয়েছে। শ্রমিকদের কেউ কেউ এখনও প্রতিশ্রুত কাজ খুঁজে পাননি।

তিনি বলেন, ট্রানজিট হোমে নোংরা পরিবেশে শ্রমিকদের রাখা হয়েছিল যা খুবই হতাশাজনক। তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সুবিধাজনক স্থানে রাখা হয়েছে। তাদের জন্য নতুন নিয়োগকর্তা খুঁজে বের করা হবে।

ভি শিবকুমার আরও বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের দেশে আনার আগে কোম্পানিগুলোকে অবশ্যই তাদের চাকরির সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। জড়িত চার কোম্পানির বিরুদ্ধে চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার (লেবার) নাজমুছ সাদাত সেলিম বলেন, উদ্ধার বাংলাদেশি শ্রমিকদের বাসস্থান ও চাকরি নিশ্চিত করা হবে। তাদের দেখভাল করছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। হাইকমিশনও কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছে।