Dhaka , Wednesday, 24 April 2024

৩ বছর পর খুললো কুয়েতের গ্র্যান্ড মসজিদ

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:33:30 am, Sunday, 16 April 2023
  • 37 বার

প্রবাস ডেস্ক: করোনা মহামারির কারণে বন্ধ থাকায় দীর্ঘ তিন বছর পর লাইলাতুল কিয়ামের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে কুয়েতের সবচেয়ে বড় মসজিদ ‘মসজিদ আল কাবীর’ তথা গ্র্যান্ড মসজিদ।

১৯৮৬ সালে নির্মিত এই মসজিদ করোনা মহামারির কারণে গত তিন বছর বন্ধ ছিল। মসজিদটিতে রমজানের শেষ ১০ দিন লাইলাতুল কিয়ামের নামাজ আদায় করতে একসঙ্গে হন হাজারো মুসল্লি।

কুয়েত সিটিতে অবস্থিত সর্ববৃহৎ এবং সরকারি মসজিদ এটি। এর আয়তন ৪৫,০০০ বর্গমিটার, যার মধ্যে ভবনটির আয়তন ২০,০০০ বর্গমিটার। মূল প্রার্থনা কক্ষটি সবদিকেই ৭২ মিটার প্রশস্ত। এতে সেগুন কাঠের দরজা এবং ১৪৪টি জানালা রয়েছে।

১টি মিনার ও ১টি গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদটিতে একসাথে প্রায় ১১ হাজার মুসল্লি নামাজ পড়তে পারে। মসজিদের মিনারটি ৭৪ মিটার লম্বা এবং গম্বুজটি ২৬ মিটার ব্যাসবিশিষ্ট ও ৪৩ মিটার উচু এবং আল্লাহর ৯৯টি নাম দিয়ে সজ্জিত।

মসজিদে মূল প্রার্থনা কক্ষে ১০,০০০ জন পুরুষ এবং পৃথক হল রুমে ৯৫০ জন নারী একসাথে নামাজ পড়তে পারে। এছাড়াও মসজিটিতে ইসলামী তথ্যসূত্রের বইপত্র ও নথিপত্র সংবলিত ৩৫০ বর্গমিটার আয়তনের একটি গ্রন্থাগার রয়েছে।

কুয়েত স্টক এক্সচেঞ্জ ও আল সাইফ প্যালেসের বিপরীতে অবস্থিত এই মসজিদটি কুয়েতের অন্যতম একটি দর্শনীয় স্থান। বন্ধের দিন ও নামাজের সময় ছাড়া দর্শক ও পর্যটকরা চাইলে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অনুমতি নিয়ে এ মসজিদ পরিদর্শন করতে পারেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

৩ বছর পর খুললো কুয়েতের গ্র্যান্ড মসজিদ

আপডেট টাইম : 08:33:30 am, Sunday, 16 April 2023

প্রবাস ডেস্ক: করোনা মহামারির কারণে বন্ধ থাকায় দীর্ঘ তিন বছর পর লাইলাতুল কিয়ামের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে কুয়েতের সবচেয়ে বড় মসজিদ ‘মসজিদ আল কাবীর’ তথা গ্র্যান্ড মসজিদ।

১৯৮৬ সালে নির্মিত এই মসজিদ করোনা মহামারির কারণে গত তিন বছর বন্ধ ছিল। মসজিদটিতে রমজানের শেষ ১০ দিন লাইলাতুল কিয়ামের নামাজ আদায় করতে একসঙ্গে হন হাজারো মুসল্লি।

কুয়েত সিটিতে অবস্থিত সর্ববৃহৎ এবং সরকারি মসজিদ এটি। এর আয়তন ৪৫,০০০ বর্গমিটার, যার মধ্যে ভবনটির আয়তন ২০,০০০ বর্গমিটার। মূল প্রার্থনা কক্ষটি সবদিকেই ৭২ মিটার প্রশস্ত। এতে সেগুন কাঠের দরজা এবং ১৪৪টি জানালা রয়েছে।

১টি মিনার ও ১টি গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদটিতে একসাথে প্রায় ১১ হাজার মুসল্লি নামাজ পড়তে পারে। মসজিদের মিনারটি ৭৪ মিটার লম্বা এবং গম্বুজটি ২৬ মিটার ব্যাসবিশিষ্ট ও ৪৩ মিটার উচু এবং আল্লাহর ৯৯টি নাম দিয়ে সজ্জিত।

মসজিদে মূল প্রার্থনা কক্ষে ১০,০০০ জন পুরুষ এবং পৃথক হল রুমে ৯৫০ জন নারী একসাথে নামাজ পড়তে পারে। এছাড়াও মসজিটিতে ইসলামী তথ্যসূত্রের বইপত্র ও নথিপত্র সংবলিত ৩৫০ বর্গমিটার আয়তনের একটি গ্রন্থাগার রয়েছে।

কুয়েত স্টক এক্সচেঞ্জ ও আল সাইফ প্যালেসের বিপরীতে অবস্থিত এই মসজিদটি কুয়েতের অন্যতম একটি দর্শনীয় স্থান। বন্ধের দিন ও নামাজের সময় ছাড়া দর্শক ও পর্যটকরা চাইলে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অনুমতি নিয়ে এ মসজিদ পরিদর্শন করতে পারেন।