Dhaka , Sunday, 25 February 2024

আতলেতিকোকে হারিয়ে শিরোপার আরও কাছে বার্সেলোনা

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 10:09:59 am, Monday, 24 April 2023
  • 34 বার

স্পোর্টস ডেস্ক: টানা তিন ম্যাচের জয় খরা, সঙ্গে গোল করতে না পারার হতাশা। হঠাৎ ঘিরে ধরা এই ছন্দহীনতা দারুণ এক জয়ে ঝেড়ে ফেলল বার্সেলোনা। শক্তিশালী আতলেতিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে লা লিগার শিরোপা পুনরুদ্ধারে বড় এক ধাপ এগিয়ে গেল শাভি এর্নান্দেসের দল।

কাম্প নউয়ে রবিবার (২৩ এপ্রিল) লা লিগার হাইভোল্টেজ ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। প্রথমার্ধে জয়সূচক গোলটি করেন ফেররান তরেস। কোপা দেল রেতে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পর ঘরের মাঠেই লা লিগায় জিরোনার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে বার্সেলোনা। এরপর গত সপ্তাহে লিগে গেতাফের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচেও গোলশূন্য ড্রয়ে মাঠ ছাড়ে তারা। প্রায় তিন সপ্তাহের ব্যর্থ পথচলা অবশেষে শেষ হলো বার্সেলোনার। লিগে টানা ছয় জয়ের আত্মবিশ্বাসে মাঠে নামা আতলেতিকোকে হারিয়ে লিগ টেবিলে ১১ পয়েন্টে এগিয়ে গেল কাতালান ক্লাবটি।

ম্যাচ শুরুর ৪৪ সেকেন্ডের মাথায় প্রথম আক্রমণেই এগিয়ে যেতে পারতো আতলেতিকো। আনহেল কোররেয়ার পাস ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় উঁচু শট নেন অঁতোয়ান গ্রিজমান। গোলরক্ষক পরাস্ত হলেও বল লাগে ক্রসবারে, বেঁচে যায় স্বাগতিকরা। বল দখলে রেখে আক্রমণে ওঠায় সিদ্ধহস্ত বার্সেলোনা এদিনও শুরু থেকে পজেশন রেখে খেলতে থাকে। কিন্তু প্রতিপক্ষকে তেমন ভাবাতে পারছিল না তারা।

৩৫তম মিনিটে মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনের নৈপুণ্যে সমতা ধরে রাখে বার্সেলোনা। বক্সের মধ্যে থেকে গ্রিজমানের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান জার্মান গোলরক্ষক। ৪৪তম মিনিটে লক্ষ্যে প্রথম শট নিয়েই বাজিমাত করে বার্সেলোনা। ডান দিক থেকে রাফিনিয়ার পাস পেয়ে বক্সের মুখ থেকে ডান পায়ের নিচু শটে গোলটি করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড তরেস।

৬২তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ হাতছাড়া হয় বার্সেলোনার। বক্সে দুজনের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে গাভির নেওয়া ডান পায়ের কোনাকুনি শট দূরের পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। পরের মিনিটে গোল পেতে পারতো আতলেতিকো, তবে ফাঁকায় বল পেয়ে লক্ষ্যেই শট রাখতে পারেননি আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার রদ্রিগো দে পল। ৭১তম মিনিটে মুহূর্তের ব্যবধানে দুটি সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করে বার্সেলোনা। বক্সে ফাঁকায় বল পেয়েও শট নিতে ব্যর্থ হন গাভি। ওই আক্রমণেই সতীর্থের পা ঘুরে ছয় গজ বক্সে বল পেয়ে যান রাফিনিয়া, গোলরক্ষক আগেই অন্য দিকে ঝুঁকে থাকায় জাল ছিল ফাঁকা। কিন্তু ঠিকমতো শট নিতেই পারলেন না রাফিনিয়া।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠা লড়াইয়ে ৭৪তম মিনিটে আরও একবার হতাশ হতে হয় গ্রিজমানকে। তার শট ঠেকিয়ে জাল অক্ষত রাখেন টের স্টেগেন। দুই মিনিট পর নিজেদের সীমানা থেকে এরিক গার্সিয়ার উঁচু থ্রু পাস মাঝমাঠ পেরিয়ে ফাঁকায় পেয়ে যান লেভানদোভস্কি, বিপদ বুঝে বক্সের বাইরে বেরিয়ে এলেও বলের নাগাল পাননি ইয়ান ওবলাক। তবে পোলিশ তারকার শট গোলরক্ষক ফাঁকি দিলেও লক্ষ্যে থাকেনি।

ব্যবধান না বাড়লেও অনেক অপেক্ষার পর জালের দেখা পাওয়া, বিশেষ করে কঠিন ম্যাচে তিন পয়েন্ট তুলে নেওয়ার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা। ৩০ ম্যাচে ২৪ জয় ও ৪ ড্রয়ে ৭৬ পয়েন্ট বার্সেলোনার। সমান ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ৫ পয়েন্ট কম নিয়ে তিনে আতলেতিকো। চার নম্বরে রিয়াল সোসিয়েদাদের পয়েন্ট ৫৪।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

আতলেতিকোকে হারিয়ে শিরোপার আরও কাছে বার্সেলোনা

আপডেট টাইম : 10:09:59 am, Monday, 24 April 2023

স্পোর্টস ডেস্ক: টানা তিন ম্যাচের জয় খরা, সঙ্গে গোল করতে না পারার হতাশা। হঠাৎ ঘিরে ধরা এই ছন্দহীনতা দারুণ এক জয়ে ঝেড়ে ফেলল বার্সেলোনা। শক্তিশালী আতলেতিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে লা লিগার শিরোপা পুনরুদ্ধারে বড় এক ধাপ এগিয়ে গেল শাভি এর্নান্দেসের দল।

কাম্প নউয়ে রবিবার (২৩ এপ্রিল) লা লিগার হাইভোল্টেজ ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে বার্সেলোনা। প্রথমার্ধে জয়সূচক গোলটি করেন ফেররান তরেস। কোপা দেল রেতে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পর ঘরের মাঠেই লা লিগায় জিরোনার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে বার্সেলোনা। এরপর গত সপ্তাহে লিগে গেতাফের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচেও গোলশূন্য ড্রয়ে মাঠ ছাড়ে তারা। প্রায় তিন সপ্তাহের ব্যর্থ পথচলা অবশেষে শেষ হলো বার্সেলোনার। লিগে টানা ছয় জয়ের আত্মবিশ্বাসে মাঠে নামা আতলেতিকোকে হারিয়ে লিগ টেবিলে ১১ পয়েন্টে এগিয়ে গেল কাতালান ক্লাবটি।

ম্যাচ শুরুর ৪৪ সেকেন্ডের মাথায় প্রথম আক্রমণেই এগিয়ে যেতে পারতো আতলেতিকো। আনহেল কোররেয়ার পাস ডি-বক্সের বাইরে পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় উঁচু শট নেন অঁতোয়ান গ্রিজমান। গোলরক্ষক পরাস্ত হলেও বল লাগে ক্রসবারে, বেঁচে যায় স্বাগতিকরা। বল দখলে রেখে আক্রমণে ওঠায় সিদ্ধহস্ত বার্সেলোনা এদিনও শুরু থেকে পজেশন রেখে খেলতে থাকে। কিন্তু প্রতিপক্ষকে তেমন ভাবাতে পারছিল না তারা।

৩৫তম মিনিটে মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনের নৈপুণ্যে সমতা ধরে রাখে বার্সেলোনা। বক্সের মধ্যে থেকে গ্রিজমানের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান জার্মান গোলরক্ষক। ৪৪তম মিনিটে লক্ষ্যে প্রথম শট নিয়েই বাজিমাত করে বার্সেলোনা। ডান দিক থেকে রাফিনিয়ার পাস পেয়ে বক্সের মুখ থেকে ডান পায়ের নিচু শটে গোলটি করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড তরেস।

৬২তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ হাতছাড়া হয় বার্সেলোনার। বক্সে দুজনের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে গাভির নেওয়া ডান পায়ের কোনাকুনি শট দূরের পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। পরের মিনিটে গোল পেতে পারতো আতলেতিকো, তবে ফাঁকায় বল পেয়ে লক্ষ্যেই শট রাখতে পারেননি আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার রদ্রিগো দে পল। ৭১তম মিনিটে মুহূর্তের ব্যবধানে দুটি সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করে বার্সেলোনা। বক্সে ফাঁকায় বল পেয়েও শট নিতে ব্যর্থ হন গাভি। ওই আক্রমণেই সতীর্থের পা ঘুরে ছয় গজ বক্সে বল পেয়ে যান রাফিনিয়া, গোলরক্ষক আগেই অন্য দিকে ঝুঁকে থাকায় জাল ছিল ফাঁকা। কিন্তু ঠিকমতো শট নিতেই পারলেন না রাফিনিয়া।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠা লড়াইয়ে ৭৪তম মিনিটে আরও একবার হতাশ হতে হয় গ্রিজমানকে। তার শট ঠেকিয়ে জাল অক্ষত রাখেন টের স্টেগেন। দুই মিনিট পর নিজেদের সীমানা থেকে এরিক গার্সিয়ার উঁচু থ্রু পাস মাঝমাঠ পেরিয়ে ফাঁকায় পেয়ে যান লেভানদোভস্কি, বিপদ বুঝে বক্সের বাইরে বেরিয়ে এলেও বলের নাগাল পাননি ইয়ান ওবলাক। তবে পোলিশ তারকার শট গোলরক্ষক ফাঁকি দিলেও লক্ষ্যে থাকেনি।

ব্যবধান না বাড়লেও অনেক অপেক্ষার পর জালের দেখা পাওয়া, বিশেষ করে কঠিন ম্যাচে তিন পয়েন্ট তুলে নেওয়ার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা। ৩০ ম্যাচে ২৪ জয় ও ৪ ড্রয়ে ৭৬ পয়েন্ট বার্সেলোনার। সমান ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ৫ পয়েন্ট কম নিয়ে তিনে আতলেতিকো। চার নম্বরে রিয়াল সোসিয়েদাদের পয়েন্ট ৫৪।