Dhaka , Friday, 12 April 2024

আর্জেন্টাইন তরুণের ৪ গোলে বিধ্বস্ত রিয়াল মাদ্রিদ

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 09:30:58 am, Wednesday, 26 April 2023
  • 41 বার

স্পোর্টস ডেস্ক: চেনা আঙিনায় রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে উজ্জীবিত ফুটবল উপহার দিল জিরোনা। আর্জেন্টাইন তরুণ ভালেন্তিন কাস্তেইয়ানোস একাই করলেন চার গোল। স্পেন ও ইউরোপ চ্যাম্পিয়নদের উড়িয়ে তার দল তুলে নিল স্মরণীয় এক জয়। প্রতিপক্ষের মাঠে মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) রাতে লা লিগার ম্যাচটি ৪-২ গোলে হেরেছে কার্লো আনচেলত্তির দল। দুই অর্ধে দুইটি করে গোল করেন কাস্তেইয়ানোস। রিয়ালের দুই গোলদাতা ভিনিসিউস জুনিয়র ও লুকাস ভাসকেস।

এই হারে রিয়ালের লিগ শিরোপা ধরে রাখার আশা বলতে গেলে একরকম শেষই হয়ে গেল। বুধবার (২৬ এপ্রিল) রায়ো ভাইয়েকানোকে হারাতে পারলে ১৪ পয়েন্টে এগিয়ে যাবে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনা। ম্যাচে মাত্র ২৯ শতাংশ সময় বল দখলে রাখতে পারে জিরোনা, তাতেই বাজিমাত করে দলটি। গোলের জন্য তাদের ১৩ শটের পাঁচটি ছিল লক্ষ্যে, যার চারটিই সফল। রিয়ালের ১৮ শটের কেবল তিনটি লক্ষ্যে ছিল।

গত শনিবার সেল্তা ভিগোকে ২-০ গোলে হারানো ম্যাচের একাদশে পাঁচটি পরিবর্তন আনেন রিয়াল কোচ আনচেলত্তি। পেটের অসুস্থতায় নিয়মিত গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া ও পেশির হালকা চোটে ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমা ছিলেন না এই ম্যাচে। প্রথম মিনিটেই গোলের দারুণ একটি সুযোগ আসে রিয়ালের রদ্রিগোর সামনে। লুকা মদ্রিচের নিচু ক্রসে ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারের ব্যাকহিল ফ্লিক ঠেকিয়ে দেন জিরোনার এক ডিফেন্ডার। দারুণ গোছানো এক আক্রমণে দ্বাদশ মিনিটে এগিয়ে যায় জিরোনা। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন অরক্ষিত আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড কাস্তেইয়ানোস।

রিয়ালের হতাশা বাড়িয়ে ২৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। নিজেদের অর্ধ থেকে আরনাউ মার্টিনেসের উঁচু করে বাড়ানো বল ধরে সঙ্গে লেগে থাকা এদের মিলিতাওকে পেছনে ফেলে বক্সে ঢুকে পড়েন কাস্তেইয়ানোস। এরপর ডান পায়ের শটে আন্দ্রি লুনিনকে পরাস্ত করেন তিনি। ৩৪তম মিনিটে ব্যবধান কমান ভিনিসিউস। ডান দিক থেকে মার্কো আসেন্সিওর ক্রসে দূরের পোস্টে হেডে বল জালে পাঠান ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের ৪৫ সেকেন্ডেই ফের দুই গোলের লিড পুনরুদ্ধার করে জিরোনা। ডান দিক থেকে সতীর্থের পাসে বক্সে প্রথম স্পর্শে শটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন কাস্তেইয়ানোস। ২০২০ সালের নভেম্বরে ভালেন্সিয়ার হয়ে কার্লোস সলেরের পর এই প্রথম লা লিগায় রিয়ালের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করলেন কেউ। রিয়াল ঘুরে দাঁড়াবে কী, উল্টো তাদের স্তব্ধ করে ৬২তম মিনিটে নিজের ও দলের চতুর্থ গোল করেন কাস্তেইয়ানোস। কাছ থেকে হেডে গোলটি করেন ২৪ বছর বয়সী ফুটবলার।

খেলার পরিসংখ্যান নিয়ে কাজ করা অপটার তথ্য অনুযায়ী, একুশ শতকে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগার ম্যাচে রিয়ালের বিপক্ষে চার গোল করার কীর্তি গড়লেন কাস্তেইয়ানোস। এর আগে সবশেষ যে হ্যাটট্রিক করেছিলেন কাস্তেইয়ানোস, সেখানেও তিনি করেছিলেন ৪ গোল; গত বছরের এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ সকারে নিউ ইয়র্ক সিটির হয়ে রিয়াল সল্ট লেকের বিপক্ষে। নিউ ইয়র্ক সিটি থেকে ধারে জিরোনায় খেলা কাস্তেইয়ানোসকে ৭২তম মিনিটে তুলে নেন কোচ। রিয়াল যদিও তেমন সুবিধা করতে পারেনি। ৮৫তম মিনিটে ভাসকেসের গোলে পরাজয়ের ব্যবধানই কমে কেবল। ভিনিসিউসের কাটব্যাক থেকে শটে গোলটি করেন খানিক আগেই বদলি নামা স্প্যানিশ মিডফিল্ডার।

চলতি আসরে ৩১ ম্যাচে ষষ্ঠ হারের তেতো স্বাদ পাওয়া রিয়াল ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে। তাদের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে চূড়ায় বার্সেলোনা। রিয়ালের সমান ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে ১১ নম্বরে আছে জিরোনা।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

আর্জেন্টাইন তরুণের ৪ গোলে বিধ্বস্ত রিয়াল মাদ্রিদ

আপডেট টাইম : 09:30:58 am, Wednesday, 26 April 2023

স্পোর্টস ডেস্ক: চেনা আঙিনায় রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে উজ্জীবিত ফুটবল উপহার দিল জিরোনা। আর্জেন্টাইন তরুণ ভালেন্তিন কাস্তেইয়ানোস একাই করলেন চার গোল। স্পেন ও ইউরোপ চ্যাম্পিয়নদের উড়িয়ে তার দল তুলে নিল স্মরণীয় এক জয়। প্রতিপক্ষের মাঠে মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) রাতে লা লিগার ম্যাচটি ৪-২ গোলে হেরেছে কার্লো আনচেলত্তির দল। দুই অর্ধে দুইটি করে গোল করেন কাস্তেইয়ানোস। রিয়ালের দুই গোলদাতা ভিনিসিউস জুনিয়র ও লুকাস ভাসকেস।

এই হারে রিয়ালের লিগ শিরোপা ধরে রাখার আশা বলতে গেলে একরকম শেষই হয়ে গেল। বুধবার (২৬ এপ্রিল) রায়ো ভাইয়েকানোকে হারাতে পারলে ১৪ পয়েন্টে এগিয়ে যাবে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনা। ম্যাচে মাত্র ২৯ শতাংশ সময় বল দখলে রাখতে পারে জিরোনা, তাতেই বাজিমাত করে দলটি। গোলের জন্য তাদের ১৩ শটের পাঁচটি ছিল লক্ষ্যে, যার চারটিই সফল। রিয়ালের ১৮ শটের কেবল তিনটি লক্ষ্যে ছিল।

গত শনিবার সেল্তা ভিগোকে ২-০ গোলে হারানো ম্যাচের একাদশে পাঁচটি পরিবর্তন আনেন রিয়াল কোচ আনচেলত্তি। পেটের অসুস্থতায় নিয়মিত গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া ও পেশির হালকা চোটে ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমা ছিলেন না এই ম্যাচে। প্রথম মিনিটেই গোলের দারুণ একটি সুযোগ আসে রিয়ালের রদ্রিগোর সামনে। লুকা মদ্রিচের নিচু ক্রসে ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারের ব্যাকহিল ফ্লিক ঠেকিয়ে দেন জিরোনার এক ডিফেন্ডার। দারুণ গোছানো এক আক্রমণে দ্বাদশ মিনিটে এগিয়ে যায় জিরোনা। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন অরক্ষিত আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড কাস্তেইয়ানোস।

রিয়ালের হতাশা বাড়িয়ে ২৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। নিজেদের অর্ধ থেকে আরনাউ মার্টিনেসের উঁচু করে বাড়ানো বল ধরে সঙ্গে লেগে থাকা এদের মিলিতাওকে পেছনে ফেলে বক্সে ঢুকে পড়েন কাস্তেইয়ানোস। এরপর ডান পায়ের শটে আন্দ্রি লুনিনকে পরাস্ত করেন তিনি। ৩৪তম মিনিটে ব্যবধান কমান ভিনিসিউস। ডান দিক থেকে মার্কো আসেন্সিওর ক্রসে দূরের পোস্টে হেডে বল জালে পাঠান ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের ৪৫ সেকেন্ডেই ফের দুই গোলের লিড পুনরুদ্ধার করে জিরোনা। ডান দিক থেকে সতীর্থের পাসে বক্সে প্রথম স্পর্শে শটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন কাস্তেইয়ানোস। ২০২০ সালের নভেম্বরে ভালেন্সিয়ার হয়ে কার্লোস সলেরের পর এই প্রথম লা লিগায় রিয়ালের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করলেন কেউ। রিয়াল ঘুরে দাঁড়াবে কী, উল্টো তাদের স্তব্ধ করে ৬২তম মিনিটে নিজের ও দলের চতুর্থ গোল করেন কাস্তেইয়ানোস। কাছ থেকে হেডে গোলটি করেন ২৪ বছর বয়সী ফুটবলার।

খেলার পরিসংখ্যান নিয়ে কাজ করা অপটার তথ্য অনুযায়ী, একুশ শতকে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগার ম্যাচে রিয়ালের বিপক্ষে চার গোল করার কীর্তি গড়লেন কাস্তেইয়ানোস। এর আগে সবশেষ যে হ্যাটট্রিক করেছিলেন কাস্তেইয়ানোস, সেখানেও তিনি করেছিলেন ৪ গোল; গত বছরের এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের মেজর লিগ সকারে নিউ ইয়র্ক সিটির হয়ে রিয়াল সল্ট লেকের বিপক্ষে। নিউ ইয়র্ক সিটি থেকে ধারে জিরোনায় খেলা কাস্তেইয়ানোসকে ৭২তম মিনিটে তুলে নেন কোচ। রিয়াল যদিও তেমন সুবিধা করতে পারেনি। ৮৫তম মিনিটে ভাসকেসের গোলে পরাজয়ের ব্যবধানই কমে কেবল। ভিনিসিউসের কাটব্যাক থেকে শটে গোলটি করেন খানিক আগেই বদলি নামা স্প্যানিশ মিডফিল্ডার।

চলতি আসরে ৩১ ম্যাচে ষষ্ঠ হারের তেতো স্বাদ পাওয়া রিয়াল ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে। তাদের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে চূড়ায় বার্সেলোনা। রিয়ালের সমান ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে ১১ নম্বরে আছে জিরোনা।