Dhaka , Tuesday, 23 April 2024

ইউক্রেন যুদ্ধে মানববিহীন টি-১৪ ট্যাঙ্ক নামিয়েছে রাশিয়া

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 09:41:44 am, Wednesday, 26 April 2023
  • 44 বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়া ইউক্রেনের অবস্থানগুলোতে হামলা চালানোর জন্য অত্যাধুনিক টি-১৪ আরমাটা ট্যাঙ্ক ব্যবহার শুরু করেছে। তবে এগুলো এখনও ‘সরাসরি আক্রমণ অভিযানে অংশ নেয়নি’।

ট্যাঙ্কগুলোতে অতিরিক্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা যুক্ত করা হয়েছে। এবং ক্রুরা ইউক্রেনের প্রশিক্ষণ গ্রাউন্ডে এটি ব্যবহারের জন্য ‘সমন্বয়’ করছে।

টি-১৪ হচ্ছে মানববিহীন ট্যাঙ্ক। ক্রুরা দূর থেকে এই ট্যাঙ্কটিকে নিয়ন্ত্রণ করে। হাইওয়েতে ট্যাঙ্কগুলোর সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার।

জানুয়ারিতে ব্রিটিশ সামরিক গোয়েন্দা বিভাগ তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, ইউক্রেনে রুশ বাহিনী তাদের ‘বাজে অবস্থার’ কারণে ট্যাঙ্কগুলোর প্রথম চালান গ্রহণ করতে অনিচ্ছুক ছিল। ইউক্রেন যুদ্ধে এর ব্যবহার সম্ভবত রাশিয়ার জন্য ‘একটি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্ত’ হতে পারে।

ব্রিটিশ সামরিক বাহিনী বলেছে, এই ট্যাঙ্কের ‘উৎপাদন সম্ভবত শুধুমাত্র নিম্নমাত্রায়, কারণ কমান্ডাররা যুদ্ধে এই গাড়িটির ওপর কম আস্থা রাখছে।’

২০১৫ সালে প্রথম টি-১৪ ট্যাঙ্ক উৎপাদনের ঘোষণা দেয় ক্রেমলিন। ২০২০ সালের মধ্যে দুই হাজার ৩০০টি ট্যাঙ্ক উৎপাদনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তবে পরবর্তীতে এর সময়সীমা বাড়িয়ে ২০২৫ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

ইউক্রেন যুদ্ধে মানববিহীন টি-১৪ ট্যাঙ্ক নামিয়েছে রাশিয়া

আপডেট টাইম : 09:41:44 am, Wednesday, 26 April 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়া ইউক্রেনের অবস্থানগুলোতে হামলা চালানোর জন্য অত্যাধুনিক টি-১৪ আরমাটা ট্যাঙ্ক ব্যবহার শুরু করেছে। তবে এগুলো এখনও ‘সরাসরি আক্রমণ অভিযানে অংশ নেয়নি’।

ট্যাঙ্কগুলোতে অতিরিক্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা যুক্ত করা হয়েছে। এবং ক্রুরা ইউক্রেনের প্রশিক্ষণ গ্রাউন্ডে এটি ব্যবহারের জন্য ‘সমন্বয়’ করছে।

টি-১৪ হচ্ছে মানববিহীন ট্যাঙ্ক। ক্রুরা দূর থেকে এই ট্যাঙ্কটিকে নিয়ন্ত্রণ করে। হাইওয়েতে ট্যাঙ্কগুলোর সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার।

জানুয়ারিতে ব্রিটিশ সামরিক গোয়েন্দা বিভাগ তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছিল, ইউক্রেনে রুশ বাহিনী তাদের ‘বাজে অবস্থার’ কারণে ট্যাঙ্কগুলোর প্রথম চালান গ্রহণ করতে অনিচ্ছুক ছিল। ইউক্রেন যুদ্ধে এর ব্যবহার সম্ভবত রাশিয়ার জন্য ‘একটি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্ত’ হতে পারে।

ব্রিটিশ সামরিক বাহিনী বলেছে, এই ট্যাঙ্কের ‘উৎপাদন সম্ভবত শুধুমাত্র নিম্নমাত্রায়, কারণ কমান্ডাররা যুদ্ধে এই গাড়িটির ওপর কম আস্থা রাখছে।’

২০১৫ সালে প্রথম টি-১৪ ট্যাঙ্ক উৎপাদনের ঘোষণা দেয় ক্রেমলিন। ২০২০ সালের মধ্যে দুই হাজার ৩০০টি ট্যাঙ্ক উৎপাদনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তবে পরবর্তীতে এর সময়সীমা বাড়িয়ে ২০২৫ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়।