Dhaka , Saturday, 22 June 2024

এক যুগ পর আরব লিগে সিরিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের চোখ ছানাবড়া

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 07:56:28 am, Monday, 8 May 2023
  • 33 বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতির বাঁক বদল চোখে পড়ার মতো। মার্কিন বলয় ছেড়ে সৌদি আরবের আপন আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টাও দৃশ্যমান। বিশ্বের নামিদামি গণমাধ্যমের খবরও বলছে, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান আবির্ভূত হতে চান আঞ্চলিক পরাশক্তি হিসেবে। আর সেই লক্ষ্যেই তিনি হাত বাড়িয়েছেন চীন-রাশিয়ার দিকে।

চীনের মধ্যস্থতায় এরইমধ্যে ইরানের সাথে চলমান দ্বন্দ্বের অনেকটাই মিটিয়ে নিয়েছে সৌদি। বছর সাতেক আগে কেটে ফেলে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পথে রিয়াদ ও তেহরান। সিরিয়ার সাথেও ফের সম্পর্ক স্বাভাবিক করছে সৌদি ও এর মিত্ররা।

সেই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আবারও আরব লিগে সিরিয়াকে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক দশকেরও বেশি সময় পর আবারও আরব লিগে ফিরছে বাশার আল আসাদের দেশ। যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমাদের কাছে এটা মোটেও স্বাভাবিক ঘটনা নয়। আরব লিগের সাথে দামেস্কের সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের বিষয়টির কঠোর সমালোচনা করেছে ওয়াশিংটন, লন্ডন ও তাদের মিত্ররা।

সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসন্ন আরব লিগের সম্মেলনে বাশার আল আসাদও উপস্থিত থাকতে পারেন বলে জানা গেছে।

এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র বলেছেন, সিরিয়া কোনোভাবেই এটা পেতে পারে না। তবে দীর্ঘ মেয়াদে সিরিয়া সংকট সমাধানের নীতিতে যুক্তরাষ্ট্র আরব লিগকে সমর্থন করে।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লর্ড আহমাদ বলেছেন, যুক্তরাজ্য সব সময় আসাদ শাসনের বিরোধিতা করে যাবে। আসাদ নিরপরাধ সিরিয়ানদের অত্যাচার ও নির্যাতন করেছে। আরব লিগের সিদ্ধান্তে অবাক হওয়ার কথাও জানিয়েছে এই ব্রিটিশ মন্ত্রণালয়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

এক যুগ পর আরব লিগে সিরিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের চোখ ছানাবড়া

আপডেট টাইম : 07:56:28 am, Monday, 8 May 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতির বাঁক বদল চোখে পড়ার মতো। মার্কিন বলয় ছেড়ে সৌদি আরবের আপন আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টাও দৃশ্যমান। বিশ্বের নামিদামি গণমাধ্যমের খবরও বলছে, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান আবির্ভূত হতে চান আঞ্চলিক পরাশক্তি হিসেবে। আর সেই লক্ষ্যেই তিনি হাত বাড়িয়েছেন চীন-রাশিয়ার দিকে।

চীনের মধ্যস্থতায় এরইমধ্যে ইরানের সাথে চলমান দ্বন্দ্বের অনেকটাই মিটিয়ে নিয়েছে সৌদি। বছর সাতেক আগে কেটে ফেলে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পথে রিয়াদ ও তেহরান। সিরিয়ার সাথেও ফের সম্পর্ক স্বাভাবিক করছে সৌদি ও এর মিত্ররা।

সেই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আবারও আরব লিগে সিরিয়াকে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক দশকেরও বেশি সময় পর আবারও আরব লিগে ফিরছে বাশার আল আসাদের দেশ। যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমাদের কাছে এটা মোটেও স্বাভাবিক ঘটনা নয়। আরব লিগের সাথে দামেস্কের সম্পর্ক পুনঃস্থাপনের বিষয়টির কঠোর সমালোচনা করেছে ওয়াশিংটন, লন্ডন ও তাদের মিত্ররা।

সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসন্ন আরব লিগের সম্মেলনে বাশার আল আসাদও উপস্থিত থাকতে পারেন বলে জানা গেছে।

এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র বলেছেন, সিরিয়া কোনোভাবেই এটা পেতে পারে না। তবে দীর্ঘ মেয়াদে সিরিয়া সংকট সমাধানের নীতিতে যুক্তরাষ্ট্র আরব লিগকে সমর্থন করে।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লর্ড আহমাদ বলেছেন, যুক্তরাজ্য সব সময় আসাদ শাসনের বিরোধিতা করে যাবে। আসাদ নিরপরাধ সিরিয়ানদের অত্যাচার ও নির্যাতন করেছে। আরব লিগের সিদ্ধান্তে অবাক হওয়ার কথাও জানিয়েছে এই ব্রিটিশ মন্ত্রণালয়।