Dhaka , Monday, 17 June 2024

ঢাকা-কায়রো ফ্লাইট : টিকিটের মূল্যছাড় নিয়ে প্রবাসীদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:19:47 am, Tuesday, 9 May 2023
  • 108 বার

প্রবাস ডেস্ক: সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সোমবার (১৪ মে) বহুল প্রত্যাশিত ইজিপ্ট এয়ার প্রথমবারের মতো ঢাকা যাবে। এরই মধ্যে গতমাসে মিশরের রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্স ইজিপ্ট এয়ার ও বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) থেকে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি পেয়েছে।

গত রমজান মাসে মিশরে বিখ্যাত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ ছাত্র সংগঠন ইত্তেহাদের এক ইফতার অনুষ্ঠানে কায়রোস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মো. মনিরুল ইসলাম ইজিপ্ট এয়ারের বরাত দিয়ে ঘোষণা করেন, আগামী ১৪ মে ঢাকাগামী সরাসরি ফ্লাইট ইজিপ্ট এয়ারের টিকিটে ৫০ শতাংশ ছাড় দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তার দুদিন পরেই ইজিপ্ট এয়ারের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ ও বিভিন্ন জায়গায় সরাসরি ৫০ শতাংশ ছাড় দিয়ে টিকিট বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখা যায়।

প্রথম ফ্লাইটে ৫০ শতাংশ ছাড়ের কথা শুনে অনেক প্রবাসীই ছুটিতে দেশে যেতে আগ্রহী হয়ে উঠেন। কিন্তু টিকিট কিনতে গিয়ে দেখা যায় ভিন্ন চিত্র। অনলাইন ও বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্টে গিয়ে টিকিটের যে মূল্য দেখা যায় তাতে বিশেষ ছাড় দেওয়ার কোনো কথা উল্লেখ নেই।

রাজধানী কায়রো বিখ্যাত তাহরির স্কয়ারের তালাত হারব রাস্তার প্রবেশ মুখে সারি সারি দাঁড়িয়ে রয়েছে বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্ট। যারা খুব সাশ্রয়ী মূল্যে বিক্রি করে বিভিন্ন গন্তব্যের টিকিট। ১৪ মে’র কায়রো-ঢাকা কায়রো টিকিটের দাম জানতে চাইলে ছাড় দেওয়ার ব্যাপারে কিছুই জানে না বলে তারা জানান।

বাংলাদেশি টিকিট বিক্রেতা শরিফ জানান, ইজিপ্ট এয়ার ছাড় ঘোষণা দেওয়ার পর টিকিটের যে মূল্য আসে, তার চেয়ে অনেক কম মূল্যে আমরা অন্য এয়ার লাইন্সে টিকিট দিতে পারি। আসলে এয়ার লাইন্স ছাড় দিয়েছে শুধু তাদের নির্ধারিত টিকিটের মূল্যের ওপর, দুই বিমানবন্দরসহ অন্যান্য ট্যাক্সের ওপর তো এয়ার লাইন্স মূল্যছাড় দিতে পারে না। তাই টিকিটের দাম অন্য এয়ার লাইন্সের চেয়ে কিছুতেই কম নয়।

আল-আজহার শিক্ষার্থী ইয়াহিয়া তানভির বলেন, আমি ঢাকা-কায়রো প্রথম ফ্লাইটের ৩টি টিকিট নিয়েছি। অনওয়ে প্রতি টিকিটের দাম ছিল ১৪৩৬০ ইজিপি, ছাড় দেওয়ার পর প্রতি টিকিটের মূল্য আসছে ১১৬৫৯ ইজিপি, তা হলে ৫০ শতাংশ ছাড় কোথায়?

আরেক বাংলাদেশি টিকিট বিক্রেতা মাকসুদ আজহারী জানান, ইজিপ্ট এয়ার তার টিকিটের ৫০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার কথা শুনে অনেকেই আসছিলেন টিকিট কিনতে। কিন্তু আমরা সে রকম কিছু দেখছি না। আমি মাত্র একটি টিকিট বিক্রি করতে পেরেছি। কর্তৃপক্ষ যদি ৫০ শতাংশ ছাড় দিত তাহলে আমি অনেক টিকিট বিক্রি করতে পারতাম।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কায়রো-ঢাকা-কায়রো ইজিপ্ট এয়ার প্রথম ফ্লাইটের প্রায় সব টিকিট শেষ। কায়রো থেকে ঢাকা যাওয়ার মাত্র ৯টি টিকিট অবশিষ্ট আছে, আর ঢাকা থেকে কায়রো ৬টি।

এদিকে গত কয়দিন আগে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস্থ এক হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ইজিপ্ট এয়ারের বাংলাদেশে জেনারেল সেলস এজেন্ট (জিএসএ) আলো ঢাকা এভিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক সৈয়দ আলী সামী অন্যান্য এয়ারলাইন্সের সঙ্গে তুলনামুলক হ্রাসকৃত ভাড়ায় টিকিট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, ১৩ মে থেকে নিউইয়র্ক-কায়রো-ঢাকা ইজিপ্ট এয়ার ফ্লাইট চালু হচ্ছে। ফ্লাইট চালুর পর থেকে পরবর্তী একমাস প্রতি টিকিটে ৩টি করে লাগেজ নেওয়ার সুযোগ পাবেন যাত্রীরা।

তিনি বলেন, ঢাকা-কায়রো রুটে আপাতত: সপ্তাহে দুইদিন রোববার ও বুধবার ফ্লাইট চলবে, তবে নিউইয়র্ক–কায়রো-নিউইয়র্ক রুটে প্রতিদিন একটি করে ফ্লাইট রয়েছে। কায়রো-ঢাকা-কায়রো রুটে সর্বাধুনিক ড্রিমলাইনার বিমান ব্যবহার করা হবে।

সামি আরও জানান, ঢাকার সঙ্গে কায়রোর কানেক্টটিং ফ্লাইট শুরু হবে ১৪ মে। আপাতত: কায়রো-ঢাকা ফ্লাইট চলবে সপ্তাহে ২ দিন। নিউইয়র্ক থেকে প্রতি শনি ও মঙ্গলবার ঢাকাগামী যাত্রীদের নিয়ে ইজিপ্ট এয়ার আকাশে উড়বে। তবে যাত্রীরা চাইলে কায়রো থেকে ঢাকায় যাওয়া আসার পথে কায়রোতে যাত্রা বিরতি করে পিরামিডসহ কায়রোর বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করতে পারেন।

তিনি জানান, কায়রোতে ট্রানজিট নেওয়া যাত্রীরা ইজিপ্ট এয়ারের বিশেষায়িত ট্যুর প্যাকেজ–টিকিট মাত্র ১২০ ডলারের বিনিময়ে ফাইভ স্টার হোটেলে ১ রাত যাপন, বেড এনড ব্রেকফাস্ট, এয়ারপোর্ট থেকে হোটেল পর্যন্ত আনা-নেওয়া, ঐতিহাসিক পিরামিড পরিদর্শনের সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন।

দুই দিনের ট্রানজিটের জন্য ব্যয় হবে টিকিটপ্রতি ২৪০ ডলার। উল্লিখিত সুবিধার সঙ্গে দ্বিতীয় দিনে যোগ হবে মিশরের বিখ্যাত নীলনদে রিভারক্রুজ ও নৈশভোজ। এছাড়া আগামীতে বাংলাদেশগামী ও বাংলাদেশ থেকে আসা যাত্রীদের জন্য ওমরাহ প্যাকেজ চালু করা হবে বলেও জানান জনাব সামি।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

ঢাকা-কায়রো ফ্লাইট : টিকিটের মূল্যছাড় নিয়ে প্রবাসীদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

আপডেট টাইম : 08:19:47 am, Tuesday, 9 May 2023

প্রবাস ডেস্ক: সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সোমবার (১৪ মে) বহুল প্রত্যাশিত ইজিপ্ট এয়ার প্রথমবারের মতো ঢাকা যাবে। এরই মধ্যে গতমাসে মিশরের রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্স ইজিপ্ট এয়ার ও বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) থেকে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি পেয়েছে।

গত রমজান মাসে মিশরে বিখ্যাত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশ ছাত্র সংগঠন ইত্তেহাদের এক ইফতার অনুষ্ঠানে কায়রোস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মো. মনিরুল ইসলাম ইজিপ্ট এয়ারের বরাত দিয়ে ঘোষণা করেন, আগামী ১৪ মে ঢাকাগামী সরাসরি ফ্লাইট ইজিপ্ট এয়ারের টিকিটে ৫০ শতাংশ ছাড় দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তার দুদিন পরেই ইজিপ্ট এয়ারের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ ও বিভিন্ন জায়গায় সরাসরি ৫০ শতাংশ ছাড় দিয়ে টিকিট বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখা যায়।

প্রথম ফ্লাইটে ৫০ শতাংশ ছাড়ের কথা শুনে অনেক প্রবাসীই ছুটিতে দেশে যেতে আগ্রহী হয়ে উঠেন। কিন্তু টিকিট কিনতে গিয়ে দেখা যায় ভিন্ন চিত্র। অনলাইন ও বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্টে গিয়ে টিকিটের যে মূল্য দেখা যায় তাতে বিশেষ ছাড় দেওয়ার কোনো কথা উল্লেখ নেই।

রাজধানী কায়রো বিখ্যাত তাহরির স্কয়ারের তালাত হারব রাস্তার প্রবেশ মুখে সারি সারি দাঁড়িয়ে রয়েছে বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্ট। যারা খুব সাশ্রয়ী মূল্যে বিক্রি করে বিভিন্ন গন্তব্যের টিকিট। ১৪ মে’র কায়রো-ঢাকা কায়রো টিকিটের দাম জানতে চাইলে ছাড় দেওয়ার ব্যাপারে কিছুই জানে না বলে তারা জানান।

বাংলাদেশি টিকিট বিক্রেতা শরিফ জানান, ইজিপ্ট এয়ার ছাড় ঘোষণা দেওয়ার পর টিকিটের যে মূল্য আসে, তার চেয়ে অনেক কম মূল্যে আমরা অন্য এয়ার লাইন্সে টিকিট দিতে পারি। আসলে এয়ার লাইন্স ছাড় দিয়েছে শুধু তাদের নির্ধারিত টিকিটের মূল্যের ওপর, দুই বিমানবন্দরসহ অন্যান্য ট্যাক্সের ওপর তো এয়ার লাইন্স মূল্যছাড় দিতে পারে না। তাই টিকিটের দাম অন্য এয়ার লাইন্সের চেয়ে কিছুতেই কম নয়।

আল-আজহার শিক্ষার্থী ইয়াহিয়া তানভির বলেন, আমি ঢাকা-কায়রো প্রথম ফ্লাইটের ৩টি টিকিট নিয়েছি। অনওয়ে প্রতি টিকিটের দাম ছিল ১৪৩৬০ ইজিপি, ছাড় দেওয়ার পর প্রতি টিকিটের মূল্য আসছে ১১৬৫৯ ইজিপি, তা হলে ৫০ শতাংশ ছাড় কোথায়?

আরেক বাংলাদেশি টিকিট বিক্রেতা মাকসুদ আজহারী জানান, ইজিপ্ট এয়ার তার টিকিটের ৫০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার কথা শুনে অনেকেই আসছিলেন টিকিট কিনতে। কিন্তু আমরা সে রকম কিছু দেখছি না। আমি মাত্র একটি টিকিট বিক্রি করতে পেরেছি। কর্তৃপক্ষ যদি ৫০ শতাংশ ছাড় দিত তাহলে আমি অনেক টিকিট বিক্রি করতে পারতাম।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কায়রো-ঢাকা-কায়রো ইজিপ্ট এয়ার প্রথম ফ্লাইটের প্রায় সব টিকিট শেষ। কায়রো থেকে ঢাকা যাওয়ার মাত্র ৯টি টিকিট অবশিষ্ট আছে, আর ঢাকা থেকে কায়রো ৬টি।

এদিকে গত কয়দিন আগে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটস্থ এক হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ইজিপ্ট এয়ারের বাংলাদেশে জেনারেল সেলস এজেন্ট (জিএসএ) আলো ঢাকা এভিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক সৈয়দ আলী সামী অন্যান্য এয়ারলাইন্সের সঙ্গে তুলনামুলক হ্রাসকৃত ভাড়ায় টিকিট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, ১৩ মে থেকে নিউইয়র্ক-কায়রো-ঢাকা ইজিপ্ট এয়ার ফ্লাইট চালু হচ্ছে। ফ্লাইট চালুর পর থেকে পরবর্তী একমাস প্রতি টিকিটে ৩টি করে লাগেজ নেওয়ার সুযোগ পাবেন যাত্রীরা।

তিনি বলেন, ঢাকা-কায়রো রুটে আপাতত: সপ্তাহে দুইদিন রোববার ও বুধবার ফ্লাইট চলবে, তবে নিউইয়র্ক–কায়রো-নিউইয়র্ক রুটে প্রতিদিন একটি করে ফ্লাইট রয়েছে। কায়রো-ঢাকা-কায়রো রুটে সর্বাধুনিক ড্রিমলাইনার বিমান ব্যবহার করা হবে।

সামি আরও জানান, ঢাকার সঙ্গে কায়রোর কানেক্টটিং ফ্লাইট শুরু হবে ১৪ মে। আপাতত: কায়রো-ঢাকা ফ্লাইট চলবে সপ্তাহে ২ দিন। নিউইয়র্ক থেকে প্রতি শনি ও মঙ্গলবার ঢাকাগামী যাত্রীদের নিয়ে ইজিপ্ট এয়ার আকাশে উড়বে। তবে যাত্রীরা চাইলে কায়রো থেকে ঢাকায় যাওয়া আসার পথে কায়রোতে যাত্রা বিরতি করে পিরামিডসহ কায়রোর বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করতে পারেন।

তিনি জানান, কায়রোতে ট্রানজিট নেওয়া যাত্রীরা ইজিপ্ট এয়ারের বিশেষায়িত ট্যুর প্যাকেজ–টিকিট মাত্র ১২০ ডলারের বিনিময়ে ফাইভ স্টার হোটেলে ১ রাত যাপন, বেড এনড ব্রেকফাস্ট, এয়ারপোর্ট থেকে হোটেল পর্যন্ত আনা-নেওয়া, ঐতিহাসিক পিরামিড পরিদর্শনের সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন।

দুই দিনের ট্রানজিটের জন্য ব্যয় হবে টিকিটপ্রতি ২৪০ ডলার। উল্লিখিত সুবিধার সঙ্গে দ্বিতীয় দিনে যোগ হবে মিশরের বিখ্যাত নীলনদে রিভারক্রুজ ও নৈশভোজ। এছাড়া আগামীতে বাংলাদেশগামী ও বাংলাদেশ থেকে আসা যাত্রীদের জন্য ওমরাহ প্যাকেজ চালু করা হবে বলেও জানান জনাব সামি।