Dhaka , Saturday, 2 March 2024

মালয়েশিয়ায় এমবিএফএর বৈশাখী মেলা ১৩ মে

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:21:15 am, Thursday, 11 May 2023
  • 30 বার

মালয়েশিয়া ডেস্ক: মালয়েশিয়ায় ১৩ মে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বৈশাখী মেলা ২০২৩। অনুষ্ঠান সফল করার লক্ষ্যে রাজধানী কুয়ালালামপুরে এক সংবাদ সম্মেলন করেছে, মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফেরাম অ্যাসোসিয়েশন (এমবিএফএ)।

মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে, ১৩ মে রাজধানী কুয়ালালামপুর ক্রাফট কমপ্লেক্সে সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে বৈশাখী মেলা।

প্রায় এক যুগের ধারাবাহিকতায় এবারও এমবিএফএয়ের আয়োজনে সবার জন্য থাকবে উন্মুক্ত। বর্ষবরণের এ উৎসবে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন প্রদেশের প্রবাসী বাঙালি সমবেত হবেন। পোশাক-আশাকে, সাজ-সজ্জায়, ভোজে-আড্ডায় এই দিনটিতে ষোলো আনা বাঙালিয়ানায় মেতে উঠবে হাজারো প্রবাসী।

প্রবাসের মাটিতে আয়োজিত হলেও এই দিনটি যেন কুয়ালালামপুর ক্রাফট কমপ্লেক্স হয়ে ওঠে লাল-সবুজের এক টুকরো বাংলাদেশ। আয়োজকেরা আশা করছেন গত দিনের ধারাবাহিকতায় এবারও বাঙালি-বাংলাদেশি সমবেত হবেন মালয়েশিয়ার এই বৈশাখী মেলায়।

ক্রাফট কমপ্লেক্সে মূল মঞ্চে শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সংগীত-নৃত্য-কবিতা, ফ্যাশন শো-স্মৃতিচারণা-কথামালার মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক আয়োজনের পাশাপাশি দিনব্যাপী চলবে নানা আয়োজন।

স্থানীয় বিভিন্ন সংগঠন ও শিল্পীদের পাশাপাশি বাংলাদেশ থেকেও যোগ দেন প্রখ্যাত সংগীত শিল্পীরা। এবারের আয়োজনে খ্যাতিমান শিল্পী শুভ্র দেব, নতুন প্রজন্মের ক্রেজ দিলশাদ নাহার কনা, চিরকুটের পিন্টু ঘোষ এবং আন্তর্জাতিক ফ্যাশন আইকন বিবি রাসেল কুয়ালালামপুর বৈশাখী মেলায় উপস্থিত হবেন।

লোক সমাগম এবং আয়োজনের ব্যাপকতায় মালয়েশিয়ার বৈশাখী মেলাকেই বাংলাদেশের বাইরে বর্ষবরণের বড় আয়োজন বলে মনে করেন আয়োজকেরা। প্রায় এক যুগ ধরে ধারাবাহিকভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ায় কুয়ালালামপুরের বৈশাখী মেলাকে মালয়েশিয়ার মূলস্রোত আর জনপ্রশাসনও অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে।

প্রতি বছর বাংলাদেশের খ্যাতনামা ব্যক্তিদের পাশাপাশি মালয়েশিয়ান মন্ত্রী এবং দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনারসহ প্রশাসনের বিভিন্ন প্রতিনিধি এমবিএফএর বৈশাখী মেলার মূল অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে থাকেন।

দিনব্যাপী মেলায় দেশীয় খাবারের দোকান, পান্তা ইলিশ ছাড়াও দেশীয় পণ্যের স্টলগুলোতে থাকে মানুষের আকর্ষণ। সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা বলছেন, বিদেশ-বিভুঁইয়ে নিজ দেশের কৃষ্টি, সংস্কৃতিকে তুলে ধরতেই মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন (এমবিএফএ) এ মেলার আয়োজন করেছে।

কুয়ালালামপুর বৈশাখী মেলায় প্রতি বছরের মতো এ বছরও প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে বিদেশিরা অংশ নেবেন বলে আশাবাদী অয়োজকরা। দল-মত নির্বিশেষে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত বাঙালি-বাংলাদেশিদের বাংলা নববর্ষে বাঙালির এ প্রাণের মেলায় যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে দেশ ও প্রবাসী সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নিসার কাদের বলেন, এ আয়োজনে প্রতি বছরের মতো এবারও যুক্ত হবে নতুনতর বিষয় ও ভিন্ন মাত্রার নানা আয়োজন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন, মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নিসার কাদের সাধারণ সম্পাদক অনুপম পাল, মেলা বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক মো. আউয়াল ও সদস্য সচিব জাফর ফিরোজ।

মেলার টাইটেল স্পন্সরদের মধ্যে বক্তব্য দেন, সিবিএল মানি ট্রান্সফারের সিইও মো. সাইদুর রহমান ফরাজী, সানওয়ে মেডিকেল সেন্টারের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার জাষ্টিন চিয়া, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের কান্ট্রি ম্যানেজার মো. শহীদুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য মো. মাসুদুর রহমান, মহুয়া রায় ও শহীদুল ইসলাম।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

মালয়েশিয়ায় এমবিএফএর বৈশাখী মেলা ১৩ মে

আপডেট টাইম : 08:21:15 am, Thursday, 11 May 2023

মালয়েশিয়া ডেস্ক: মালয়েশিয়ায় ১৩ মে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বৈশাখী মেলা ২০২৩। অনুষ্ঠান সফল করার লক্ষ্যে রাজধানী কুয়ালালামপুরে এক সংবাদ সম্মেলন করেছে, মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফেরাম অ্যাসোসিয়েশন (এমবিএফএ)।

মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে, ১৩ মে রাজধানী কুয়ালালামপুর ক্রাফট কমপ্লেক্সে সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে বৈশাখী মেলা।

প্রায় এক যুগের ধারাবাহিকতায় এবারও এমবিএফএয়ের আয়োজনে সবার জন্য থাকবে উন্মুক্ত। বর্ষবরণের এ উৎসবে মালয়েশিয়ার বিভিন্ন প্রদেশের প্রবাসী বাঙালি সমবেত হবেন। পোশাক-আশাকে, সাজ-সজ্জায়, ভোজে-আড্ডায় এই দিনটিতে ষোলো আনা বাঙালিয়ানায় মেতে উঠবে হাজারো প্রবাসী।

প্রবাসের মাটিতে আয়োজিত হলেও এই দিনটি যেন কুয়ালালামপুর ক্রাফট কমপ্লেক্স হয়ে ওঠে লাল-সবুজের এক টুকরো বাংলাদেশ। আয়োজকেরা আশা করছেন গত দিনের ধারাবাহিকতায় এবারও বাঙালি-বাংলাদেশি সমবেত হবেন মালয়েশিয়ার এই বৈশাখী মেলায়।

ক্রাফট কমপ্লেক্সে মূল মঞ্চে শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সংগীত-নৃত্য-কবিতা, ফ্যাশন শো-স্মৃতিচারণা-কথামালার মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক আয়োজনের পাশাপাশি দিনব্যাপী চলবে নানা আয়োজন।

স্থানীয় বিভিন্ন সংগঠন ও শিল্পীদের পাশাপাশি বাংলাদেশ থেকেও যোগ দেন প্রখ্যাত সংগীত শিল্পীরা। এবারের আয়োজনে খ্যাতিমান শিল্পী শুভ্র দেব, নতুন প্রজন্মের ক্রেজ দিলশাদ নাহার কনা, চিরকুটের পিন্টু ঘোষ এবং আন্তর্জাতিক ফ্যাশন আইকন বিবি রাসেল কুয়ালালামপুর বৈশাখী মেলায় উপস্থিত হবেন।

লোক সমাগম এবং আয়োজনের ব্যাপকতায় মালয়েশিয়ার বৈশাখী মেলাকেই বাংলাদেশের বাইরে বর্ষবরণের বড় আয়োজন বলে মনে করেন আয়োজকেরা। প্রায় এক যুগ ধরে ধারাবাহিকভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ায় কুয়ালালামপুরের বৈশাখী মেলাকে মালয়েশিয়ার মূলস্রোত আর জনপ্রশাসনও অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে।

প্রতি বছর বাংলাদেশের খ্যাতনামা ব্যক্তিদের পাশাপাশি মালয়েশিয়ান মন্ত্রী এবং দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনারসহ প্রশাসনের বিভিন্ন প্রতিনিধি এমবিএফএর বৈশাখী মেলার মূল অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে থাকেন।

দিনব্যাপী মেলায় দেশীয় খাবারের দোকান, পান্তা ইলিশ ছাড়াও দেশীয় পণ্যের স্টলগুলোতে থাকে মানুষের আকর্ষণ। সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা বলছেন, বিদেশ-বিভুঁইয়ে নিজ দেশের কৃষ্টি, সংস্কৃতিকে তুলে ধরতেই মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন (এমবিএফএ) এ মেলার আয়োজন করেছে।

কুয়ালালামপুর বৈশাখী মেলায় প্রতি বছরের মতো এ বছরও প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে বিদেশিরা অংশ নেবেন বলে আশাবাদী অয়োজকরা। দল-মত নির্বিশেষে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত বাঙালি-বাংলাদেশিদের বাংলা নববর্ষে বাঙালির এ প্রাণের মেলায় যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশন।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে দেশ ও প্রবাসী সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নিসার কাদের বলেন, এ আয়োজনে প্রতি বছরের মতো এবারও যুক্ত হবে নতুনতর বিষয় ও ভিন্ন মাত্রার নানা আয়োজন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন, মালয়েশিয়া বাংলাদেশ ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নিসার কাদের সাধারণ সম্পাদক অনুপম পাল, মেলা বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক মো. আউয়াল ও সদস্য সচিব জাফর ফিরোজ।

মেলার টাইটেল স্পন্সরদের মধ্যে বক্তব্য দেন, সিবিএল মানি ট্রান্সফারের সিইও মো. সাইদুর রহমান ফরাজী, সানওয়ে মেডিকেল সেন্টারের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার জাষ্টিন চিয়া, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের কান্ট্রি ম্যানেজার মো. শহীদুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ফোরাম অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য মো. মাসুদুর রহমান, মহুয়া রায় ও শহীদুল ইসলাম।