Dhaka , Monday, 17 June 2024

কানাডায় ‘নজরুল সংগীত সন্ধ্যা’ অনুষ্ঠিত

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 07:58:24 am, Monday, 15 May 2023
  • 27 বার

প্রবাস ডেস্ক: বাঙালি জাতিসত্তার প্রকৃত পরিচয় ও বাঙালিয়ানাকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ধরে রাখতে এবং আবহমান বাংলার কৃষ্টি, ইতিহাস, ঐতিহ্যের সঙ্গে সেতু বন্ধন তৈরি করতে সাম্যর কবি, বিদ্রোহী কবি আর ভালোবাসার কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষ্যে ‘নজরুল সংগীত সন্ধ্যা’ আয়োজন করেছে কানাডার ক্যালগেরির প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

ক্যালগেরির ফলকনরিজ কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন বাংলাদেশ থেকে আসা ‘বাংলাদেশ নজরুল সংগীত সংস্থা’র সাধারণ সম্পাদক এবং ছায়ানট সংগীত বিদ্যায়াতনের ভাইস প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী খাইরুল আনাম শাকিল।

বরফাচ্ছন্ন কানাডা বছরের এই সময়টাতে প্রকৃতি ভিন্ন অবয়বে নতুন চেহারায় জেগে উঠলেও প্রকৃতিতে বিরাজ করে চাঞ্চল্য আর অস্থিরতার আমেজ। চারদিকে গাছগাছালিতে নতুন রূপ। এমনি এক পরিবেশে শিল্পী শাকিল কবি নজরুলকে গাইলেন নিজের কণ্ঠে। সুর ও বাণীর মালা দিয়ে বাঁধলেন দর্শকদের।

বহু সম্প্রদায়ের দেশ কানাডায় দিনটি গতানুগতিক মনে হলেও প্রবাসী বাঙালিদের কাছে ছিল সম্পূর্ণ আলাদা, আবেগ-অনুভূতি-উচ্ছ্বাসে ভরে ওঠা মাধুর্যমণ্ডিত একটি সন্ধ্যা, যেন নিজেকে নজরুলীয় ভালোবাসায় সমর্পিত ও উদ্ভাসিত করা।

কমিউনিটি সেন্টারে সংগীতপ্রেমী নারী পুরুষের পদচারণায় হৃদয় মন ভরে উঠেছিল অন্যরকম এক আবেগ ভালোবাসার মিলনমেলায়। প্রেমময়,সাম্যবাদী, মানবিক চেতনার কবির ‘নজরুল সন্ধ্যা’- প্রবাসীদের মাঝে মাতৃভূমি এবং বাঙালির সাংস্কৃতিক চর্চার ধারাকে আরও সমৃদ্ধ করবে এমন আশা আয়োজকদের।

অনুষ্ঠানের আয়োজক ইকবাল রহমান জানান, আসছে ২৪ মে আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন। সেই উপলক্ষ্যে ক্যালগেরিতে ভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে আমরা নজরুলকে তুলে ধরেছি যা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এবং প্রবাসীদের মাঝে নজরুলের চেতনাকে জাগ্রত করবে।

অনুষ্ঠানের অন্যতম আয়োজক খয়ের খোন্দকার রবেল বলেন, খুব ভালো লাগছে প্রবাসে কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষ্যে এ রকম একটা আয়োজন করতে পেরে। আমাদের প্রিয় শিল্পী খাইরুল আনাম শাকিলের সুর ও বাণীর মালায় আমরা মুগ্ধ। প্রবাসে ভিন্ন এ আয়োজন আমাদের সংস্কৃতির বলয়কে আরও সুদীর্ঘ করবে, এমনটাই আমার বিশ্বাস।

সংগীত শিল্পী সোহাগ হাসান বলেন, প্রবাসে এ ধরনের আয়োজনে আমরা সত্যিই অভিভূত। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম তার অনবদ্য সৃষ্টির মধ্যে দিয়ে তিনি আমাদের হৃদয়ে অমর হয়ে থাকবেন।

বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সাধারণ সম্পাদক শুভ্র দাস বলেন, বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম তার সৃষ্টির মধ্য দিয়ে শুধু প্রবাসে নয় সারা বিশ্বের মানুষের মাঝে তিনি জাগ্রত থাকবেন। তার জন্মদিনে আমাদের অভিনন্দন এবং বিনম্র শ্রদ্ধা।

বাংলাদেশ নজরুল সঙ্গীত সংস্থার সাধারণ সম্পাদক এবং ছায়ানট সংগীত বিদ্যায়তনের ভাইস প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী খাইরুল আনাম শাকিল বলেন, প্রবাসে নজরুল সংগীত সন্ধ্যার এই আয়োজনে প্রবাসীদের মধ্যে উৎসাহ ও উদ্দীপনা দেখে আমি অভিভূত। ক্যালগেরির প্রবাসী বাঙালিদের দেশপ্রেম ও সংস্কৃতির প্রতি যে ভালোবাসা তা গভীরভাবে লক্ষ্য করেছি। আশাকরি ভবিষ্যতেও এই চর্চা অব্যাহত থাকবে এবং আমাদের নতুন প্রজন্মের হাতে নজরুলের যা কিছু রচনা, যা কিছু সৃষ্টি ভালো অনুবাদের মাধ্যমে তা তুলে দিতে হবে।

দ্রোহ, প্রেম, ধর্মীয় অনুপ্রেরণা ও সাম্যবাদের কবি কাজী নজরুল ইসলামের একেকটি দীপ্তিমান শব্দবর্ধন সেই ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন থেকে বাঙালিকে উজ্জীবিত করেছে স্বাধীনতা সংগ্রাম পর্যন্ত। বাঙালির আন্দোলনে তার সৃষ্টি আজও সমানভাবে প্রেরণা যোগায়।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

কানাডায় ‘নজরুল সংগীত সন্ধ্যা’ অনুষ্ঠিত

আপডেট টাইম : 07:58:24 am, Monday, 15 May 2023

প্রবাস ডেস্ক: বাঙালি জাতিসত্তার প্রকৃত পরিচয় ও বাঙালিয়ানাকে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ধরে রাখতে এবং আবহমান বাংলার কৃষ্টি, ইতিহাস, ঐতিহ্যের সঙ্গে সেতু বন্ধন তৈরি করতে সাম্যর কবি, বিদ্রোহী কবি আর ভালোবাসার কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষ্যে ‘নজরুল সংগীত সন্ধ্যা’ আয়োজন করেছে কানাডার ক্যালগেরির প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

ক্যালগেরির ফলকনরিজ কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন বাংলাদেশ থেকে আসা ‘বাংলাদেশ নজরুল সংগীত সংস্থা’র সাধারণ সম্পাদক এবং ছায়ানট সংগীত বিদ্যায়াতনের ভাইস প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী খাইরুল আনাম শাকিল।

বরফাচ্ছন্ন কানাডা বছরের এই সময়টাতে প্রকৃতি ভিন্ন অবয়বে নতুন চেহারায় জেগে উঠলেও প্রকৃতিতে বিরাজ করে চাঞ্চল্য আর অস্থিরতার আমেজ। চারদিকে গাছগাছালিতে নতুন রূপ। এমনি এক পরিবেশে শিল্পী শাকিল কবি নজরুলকে গাইলেন নিজের কণ্ঠে। সুর ও বাণীর মালা দিয়ে বাঁধলেন দর্শকদের।

বহু সম্প্রদায়ের দেশ কানাডায় দিনটি গতানুগতিক মনে হলেও প্রবাসী বাঙালিদের কাছে ছিল সম্পূর্ণ আলাদা, আবেগ-অনুভূতি-উচ্ছ্বাসে ভরে ওঠা মাধুর্যমণ্ডিত একটি সন্ধ্যা, যেন নিজেকে নজরুলীয় ভালোবাসায় সমর্পিত ও উদ্ভাসিত করা।

কমিউনিটি সেন্টারে সংগীতপ্রেমী নারী পুরুষের পদচারণায় হৃদয় মন ভরে উঠেছিল অন্যরকম এক আবেগ ভালোবাসার মিলনমেলায়। প্রেমময়,সাম্যবাদী, মানবিক চেতনার কবির ‘নজরুল সন্ধ্যা’- প্রবাসীদের মাঝে মাতৃভূমি এবং বাঙালির সাংস্কৃতিক চর্চার ধারাকে আরও সমৃদ্ধ করবে এমন আশা আয়োজকদের।

অনুষ্ঠানের আয়োজক ইকবাল রহমান জানান, আসছে ২৪ মে আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন। সেই উপলক্ষ্যে ক্যালগেরিতে ভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে আমরা নজরুলকে তুলে ধরেছি যা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এবং প্রবাসীদের মাঝে নজরুলের চেতনাকে জাগ্রত করবে।

অনুষ্ঠানের অন্যতম আয়োজক খয়ের খোন্দকার রবেল বলেন, খুব ভালো লাগছে প্রবাসে কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষ্যে এ রকম একটা আয়োজন করতে পেরে। আমাদের প্রিয় শিল্পী খাইরুল আনাম শাকিলের সুর ও বাণীর মালায় আমরা মুগ্ধ। প্রবাসে ভিন্ন এ আয়োজন আমাদের সংস্কৃতির বলয়কে আরও সুদীর্ঘ করবে, এমনটাই আমার বিশ্বাস।

সংগীত শিল্পী সোহাগ হাসান বলেন, প্রবাসে এ ধরনের আয়োজনে আমরা সত্যিই অভিভূত। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম তার অনবদ্য সৃষ্টির মধ্যে দিয়ে তিনি আমাদের হৃদয়ে অমর হয়ে থাকবেন।

বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সাধারণ সম্পাদক শুভ্র দাস বলেন, বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম তার সৃষ্টির মধ্য দিয়ে শুধু প্রবাসে নয় সারা বিশ্বের মানুষের মাঝে তিনি জাগ্রত থাকবেন। তার জন্মদিনে আমাদের অভিনন্দন এবং বিনম্র শ্রদ্ধা।

বাংলাদেশ নজরুল সঙ্গীত সংস্থার সাধারণ সম্পাদক এবং ছায়ানট সংগীত বিদ্যায়তনের ভাইস প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী খাইরুল আনাম শাকিল বলেন, প্রবাসে নজরুল সংগীত সন্ধ্যার এই আয়োজনে প্রবাসীদের মধ্যে উৎসাহ ও উদ্দীপনা দেখে আমি অভিভূত। ক্যালগেরির প্রবাসী বাঙালিদের দেশপ্রেম ও সংস্কৃতির প্রতি যে ভালোবাসা তা গভীরভাবে লক্ষ্য করেছি। আশাকরি ভবিষ্যতেও এই চর্চা অব্যাহত থাকবে এবং আমাদের নতুন প্রজন্মের হাতে নজরুলের যা কিছু রচনা, যা কিছু সৃষ্টি ভালো অনুবাদের মাধ্যমে তা তুলে দিতে হবে।

দ্রোহ, প্রেম, ধর্মীয় অনুপ্রেরণা ও সাম্যবাদের কবি কাজী নজরুল ইসলামের একেকটি দীপ্তিমান শব্দবর্ধন সেই ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন থেকে বাঙালিকে উজ্জীবিত করেছে স্বাধীনতা সংগ্রাম পর্যন্ত। বাঙালির আন্দোলনে তার সৃষ্টি আজও সমানভাবে প্রেরণা যোগায়।