Dhaka , Tuesday, 23 April 2024

রিয়ালকে বিধ্বস্ত করে ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটি

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:05:07 am, Thursday, 18 May 2023
  • 47 বার

স্পোর্টস ডেস্ক: চ্যাম্পিয়নস লিগ মানেই যেন রিয়াল মাদ্রিদের ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প। কিন্তু এবার গল্পটা ম্যানচেস্টার সিটিই লিখল; তবে প্রত্যাবর্তনের নয়, দাপুটে ফুটবলের।

চ্যাম্পিয়নস লিগের রাজাদের গুঁড়িয়ে দ্বিতীয়বারের মতো পা রাখল ফাইনালে।

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে সেমিফাইনালের প্রথম লেগ শেষ হয়েছিল ১-১ গোলের ড্রতে। তাই মীমাংসার রাতটা জমা থাকে ইতিহাদের জন্য। ঘরের মাঠে রিয়ালকে অবশ্য পাত্তাই দিল না সিটি। বের্নার্দো সিলভার জোড়া গোলের সুবাদে ৪-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-১ গোলের অগ্রগামিতায় নিশ্চিত করে ইস্তাম্বুলের টিকিট। একইসঙ্গে গত আসরে হারের প্রতিশোধটাও নিল মধুরভাবে। ঠিক এই পর্যায় থেকেই তো পেপ গার্দিওলার দলকে ছিটকে যেতে হয়েছিল। এবার গল্পের পুনরাবৃত্তিটা করতে পারেনি রিয়াল।

অবশ্য করার মতো সুযোগ পায়নি বললেও ভুল হবে না। ইতিহাদে রেফারি বাঁশি বাজার শুরু থেকেই তাদের চেপে ধরে স্বাগতিকরা। একের পর এক আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত করে রাখে রক্ষণদূর্গ। কিন্তু গোলপোস্টের নিচে থাকা থিবো কোর্তায়াকে পরাস্ত করতে একটু কাঠখড় পোহাতে হয়েছে। আরলিং হালান্ড দুয়েকবার চেষ্টা করেও পারেননি। বার্নাব্যুতে বোতলবন্ধী থাকা এই ফরোয়ার্ড দ্বিতীয় লেগে একদমই খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। সেদিন অবশ্য তাকে আটকে রাখার দায়িত্বটা ভালোভাবেই পালন করেছিলেন আন্তোনিও রুদিগার। কিন্তু এবার জার্মান ডিফেন্ডারকে শুরুর একাদশেই রাখেননি রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তি।

যাইহোক হালান্ড না পারলেও পেরেছেন বের্নার্দো সিলভা। ২৩ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনার পাস খুঁজে নিয়েছিল ফাঁকায় থাকা এই মিডফিল্ডারকে। বাঁ পায়ের বুলেট গতির শটে কোর্তোয়াকে পরাস্ত করেন তিনি।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

রিয়ালকে বিধ্বস্ত করে ফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটি

আপডেট টাইম : 08:05:07 am, Thursday, 18 May 2023

স্পোর্টস ডেস্ক: চ্যাম্পিয়নস লিগ মানেই যেন রিয়াল মাদ্রিদের ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প। কিন্তু এবার গল্পটা ম্যানচেস্টার সিটিই লিখল; তবে প্রত্যাবর্তনের নয়, দাপুটে ফুটবলের।

চ্যাম্পিয়নস লিগের রাজাদের গুঁড়িয়ে দ্বিতীয়বারের মতো পা রাখল ফাইনালে।

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে সেমিফাইনালের প্রথম লেগ শেষ হয়েছিল ১-১ গোলের ড্রতে। তাই মীমাংসার রাতটা জমা থাকে ইতিহাদের জন্য। ঘরের মাঠে রিয়ালকে অবশ্য পাত্তাই দিল না সিটি। বের্নার্দো সিলভার জোড়া গোলের সুবাদে ৪-০ ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-১ গোলের অগ্রগামিতায় নিশ্চিত করে ইস্তাম্বুলের টিকিট। একইসঙ্গে গত আসরে হারের প্রতিশোধটাও নিল মধুরভাবে। ঠিক এই পর্যায় থেকেই তো পেপ গার্দিওলার দলকে ছিটকে যেতে হয়েছিল। এবার গল্পের পুনরাবৃত্তিটা করতে পারেনি রিয়াল।

অবশ্য করার মতো সুযোগ পায়নি বললেও ভুল হবে না। ইতিহাদে রেফারি বাঁশি বাজার শুরু থেকেই তাদের চেপে ধরে স্বাগতিকরা। একের পর এক আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত করে রাখে রক্ষণদূর্গ। কিন্তু গোলপোস্টের নিচে থাকা থিবো কোর্তায়াকে পরাস্ত করতে একটু কাঠখড় পোহাতে হয়েছে। আরলিং হালান্ড দুয়েকবার চেষ্টা করেও পারেননি। বার্নাব্যুতে বোতলবন্ধী থাকা এই ফরোয়ার্ড দ্বিতীয় লেগে একদমই খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। সেদিন অবশ্য তাকে আটকে রাখার দায়িত্বটা ভালোভাবেই পালন করেছিলেন আন্তোনিও রুদিগার। কিন্তু এবার জার্মান ডিফেন্ডারকে শুরুর একাদশেই রাখেননি রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তি।

যাইহোক হালান্ড না পারলেও পেরেছেন বের্নার্দো সিলভা। ২৩ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনার পাস খুঁজে নিয়েছিল ফাঁকায় থাকা এই মিডফিল্ডারকে। বাঁ পায়ের বুলেট গতির শটে কোর্তোয়াকে পরাস্ত করেন তিনি।