Dhaka , Monday, 17 June 2024

মিশরে আন্তর্জাতিক ঢোল উৎসবে বাংলাদেশ

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:22:56 am, Tuesday, 30 May 2023
  • 50 বার

প্রবাস ডেস্ক: ‘শান্তির জন্য ঢোল সংলাপ’ স্লোগান নিয়ে মিশরে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী আন্তর্জাতিক ঢোল ও ঐতিহ্যবাহী লোকশিল্প উৎসব। দেশটির পর্যটন ও পুরাকীর্তি মন্ত্রণালয় আয়োজিত এ উৎসবের ১০ম আসরে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৩০টি সাংস্কৃতিক দল অংশ নিয়েছে।

জাঁকজমপূর্ণ এ উৎসবে অংশ নেওয়া অন্যান্য দেশগুলো হলো গ্রিস, মেক্সিকো, ভারত, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ সুদান, আলজেরিয়া, ইয়েমেন, ফিলিস্তিনের ও স্বাগতিক মিশর।

দেশটির রাজধানীর ইসলামিক কায়রোর ঐতিহাসিক মুইয-ঈল স্ট্রিটের উত্তর কায়রো ওয়াল থিয়েটারে উৎসবে দেশটির সংস্কৃতি মন্ত্রী ড. নেভিন আল-কিলানি ও পরিকল্পনা মন্ত্রী ড. হালা আল-সাইদ, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিদের উপস্থিতে অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন আন্তর্জাতিক ঢোল উৎসবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইন্তেসার আবদেল ফাত্তাহ।

কায়রোস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ৮ সদস্যের প্রবাসী বাংলাদেশি শিল্পীদের একটি সাংস্কৃতিক দল এতে অংশগ্রহণ করছে। বাংলাদেশ দলটি শুধু উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নিলেও অন্যান্য দেশের সংস্কৃতিক দলগুলো সপ্তাহব্যাপী প্রতি দিন অংশ নেবে রাজধানী কায়রোর নিম্ন লিখিত ৫টি থিয়েটারে।

ইসলামিক কায়রোর নর্থ ওয়াল থিয়েটার, অপেরা হ্যানাগার স্কোয়ার, আল-হাউদ আল-মারসু সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, হেলিও পোলিসের মিশরীয় সভ্যতা ও শিশু জাদুঘর এবং সাঈদা জয়নব এলাকার দি সিনারি হাউস। বাংলাদেশ সংস্কৃতি দলের শিল্পীরা হলেন শিশির কুমার সরকার, ফারুক হোসেন, মো. ফেরদৌস, সোহেল, দেলোয়ার, প্রীতি সরকার, সানজিদা মুনা ও ইশা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ-মিশরের বন্ধুত্বের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে এবং কায়রো-ঢাকা বিনিময় ও সহযোগিতা গভীরতর হচ্ছে। আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবটি দুই দেশের সংস্কৃতির অঙ্গনের দ্বার আরও উন্মুক্ত করবে।

মিশরের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সংস্কৃতি ও শিল্প বিশেষজ্ঞ এবং খ্যাতিমান শিল্পী ইন্তেসার আবদেল ফাত্তাহ ২০১২ সালে আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবের সূচনা করেছিলেন। তিনি মিশরীয় আর্টস ট্রুপের মতো বিভিন্ন শিল্প গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা।

শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবটি ২ই জুন রোজ শুক্রবার পর্যন্ত চলবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

জনপ্রিয় সংবাদ

মিশরে আন্তর্জাতিক ঢোল উৎসবে বাংলাদেশ

আপডেট টাইম : 08:22:56 am, Tuesday, 30 May 2023

প্রবাস ডেস্ক: ‘শান্তির জন্য ঢোল সংলাপ’ স্লোগান নিয়ে মিশরে শুরু হয়েছে সপ্তাহব্যাপী আন্তর্জাতিক ঢোল ও ঐতিহ্যবাহী লোকশিল্প উৎসব। দেশটির পর্যটন ও পুরাকীর্তি মন্ত্রণালয় আয়োজিত এ উৎসবের ১০ম আসরে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৩০টি সাংস্কৃতিক দল অংশ নিয়েছে।

জাঁকজমপূর্ণ এ উৎসবে অংশ নেওয়া অন্যান্য দেশগুলো হলো গ্রিস, মেক্সিকো, ভারত, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ সুদান, আলজেরিয়া, ইয়েমেন, ফিলিস্তিনের ও স্বাগতিক মিশর।

দেশটির রাজধানীর ইসলামিক কায়রোর ঐতিহাসিক মুইয-ঈল স্ট্রিটের উত্তর কায়রো ওয়াল থিয়েটারে উৎসবে দেশটির সংস্কৃতি মন্ত্রী ড. নেভিন আল-কিলানি ও পরিকল্পনা মন্ত্রী ড. হালা আল-সাইদ, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধিদের উপস্থিতে অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন আন্তর্জাতিক ঢোল উৎসবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ইন্তেসার আবদেল ফাত্তাহ।

কায়রোস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ৮ সদস্যের প্রবাসী বাংলাদেশি শিল্পীদের একটি সাংস্কৃতিক দল এতে অংশগ্রহণ করছে। বাংলাদেশ দলটি শুধু উদ্বোধনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নিলেও অন্যান্য দেশের সংস্কৃতিক দলগুলো সপ্তাহব্যাপী প্রতি দিন অংশ নেবে রাজধানী কায়রোর নিম্ন লিখিত ৫টি থিয়েটারে।

ইসলামিক কায়রোর নর্থ ওয়াল থিয়েটার, অপেরা হ্যানাগার স্কোয়ার, আল-হাউদ আল-মারসু সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, হেলিও পোলিসের মিশরীয় সভ্যতা ও শিশু জাদুঘর এবং সাঈদা জয়নব এলাকার দি সিনারি হাউস। বাংলাদেশ সংস্কৃতি দলের শিল্পীরা হলেন শিশির কুমার সরকার, ফারুক হোসেন, মো. ফেরদৌস, সোহেল, দেলোয়ার, প্রীতি সরকার, সানজিদা মুনা ও ইশা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ-মিশরের বন্ধুত্বের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে এবং কায়রো-ঢাকা বিনিময় ও সহযোগিতা গভীরতর হচ্ছে। আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবটি দুই দেশের সংস্কৃতির অঙ্গনের দ্বার আরও উন্মুক্ত করবে।

মিশরের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সংস্কৃতি ও শিল্প বিশেষজ্ঞ এবং খ্যাতিমান শিল্পী ইন্তেসার আবদেল ফাত্তাহ ২০১২ সালে আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবের সূচনা করেছিলেন। তিনি মিশরীয় আর্টস ট্রুপের মতো বিভিন্ন শিল্প গোষ্ঠীর প্রতিষ্ঠাতা।

শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক ঢোল ও লোকশিল্প উৎসবটি ২ই জুন রোজ শুক্রবার পর্যন্ত চলবে।