Dhaka , Wednesday, 29 May 2024

তেলের জন্য সৌদি সফরে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:22:41 am, Thursday, 8 June 2023
  • 41 বার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তেলের দাম স্থিতিশীল রাখতে এবং সরবরাহ নিশ্চিতের জন্য সৌদি আরব সফরে গেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। তিনি সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

ইরানের মানবাধিকার থেকে শুরু করে ইয়েমেন পর্যন্ত বিভিন্ন ইস্যুতে বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে সৌদি আরবের তীব্র মতবিরোধ চলে আসছে। সম্প্রতি ইরান ও সিরিয়ার সঙ্গে সৌদি আরবের দীর্ঘদিনের বিরোধ অবসানে নতুন করে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া গত সপ্তাহে সৌদি আরব তেলের উৎপাদন কমিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এতে তেলের দাম নতুন করে বাড়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, ব্লিঙ্কেনের সফরের লক্ষ্যের মধ্যে রয়েছে তেলের দামের ওপর রিয়াদের প্রভাব পুনরুদ্ধার করা, এই অঞ্চলে চীনা ও রাশিয়ার প্রভাব প্রতিহত করা এবং সৌদি আরব-ইসরায়েল সম্পর্কের চূড়ান্ত স্বাভাবিককরণ।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর এক বিবৃতিতে বলেছে, সৌদি যুবরাজের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনায় অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়ানোর উপর জোর দেওয়া হয়েছে, বিশেষত জ্বালানি ও প্রযুক্তি খাতের ওপর বিশেষ আলোচনায় হয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

তেলের জন্য সৌদি সফরে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট টাইম : 08:22:41 am, Thursday, 8 June 2023

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তেলের দাম স্থিতিশীল রাখতে এবং সরবরাহ নিশ্চিতের জন্য সৌদি আরব সফরে গেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। তিনি সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

ইরানের মানবাধিকার থেকে শুরু করে ইয়েমেন পর্যন্ত বিভিন্ন ইস্যুতে বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে সৌদি আরবের তীব্র মতবিরোধ চলে আসছে। সম্প্রতি ইরান ও সিরিয়ার সঙ্গে সৌদি আরবের দীর্ঘদিনের বিরোধ অবসানে নতুন করে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া গত সপ্তাহে সৌদি আরব তেলের উৎপাদন কমিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এতে তেলের দাম নতুন করে বাড়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, ব্লিঙ্কেনের সফরের লক্ষ্যের মধ্যে রয়েছে তেলের দামের ওপর রিয়াদের প্রভাব পুনরুদ্ধার করা, এই অঞ্চলে চীনা ও রাশিয়ার প্রভাব প্রতিহত করা এবং সৌদি আরব-ইসরায়েল সম্পর্কের চূড়ান্ত স্বাভাবিককরণ।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর এক বিবৃতিতে বলেছে, সৌদি যুবরাজের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনায় অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়ানোর উপর জোর দেওয়া হয়েছে, বিশেষত জ্বালানি ও প্রযুক্তি খাতের ওপর বিশেষ আলোচনায় হয়েছে।