Dhaka , Friday, 24 May 2024

মিশরে ভবনের পাইপ বেয়ে নামতে গিয়ে বাংলাদেশির মৃত্যু

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:15:38 am, Wednesday, 21 June 2023
  • 37 বার

প্রবাস ডেস্ক: মিশরে স্থানীয় বখাটেদের হাত থেকে বাঁচতে ভবনের পাইপ বেয়ে নামতে গিয়ে আলমগীর হৃদয় নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুজন।

সোমবার (১৯ জুন) রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলমগীরের বাড়ি মাগুরা জেলায়। আহতরা হলেন নওগাঁর রাসেল হোসেন ও ভাগিনা রাসেল।

জানা যায়, বন্দরনগরী আলেক্সান্দ্রিয়ার আলেক্স অ্যাপারেল নামের একটি পোশাক কারখানায় কর্মরত চার বাংলাদেশি মিশরীয় দুই বান্ধবীকে বাসায় ডেকে আনেন। বিষয়টা দেখে স্থানীয় কিছু বখাটে এসে হানা দেয় ও তাদের কাছে টাকা দাবি করেন। দাবি অনুযায়ী টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে বিভিন্ন হুমকি দিতে থাকেন।

ভেতরে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিরা আতঙ্কিত হয়ে পাঁচতলা ভবনের পেছনের টয়লেটের পাইপ বেয়ে নিচে নেমে নামার চেষ্টা করেন। এ সময় নিচে পড়ে গিয়ে আলমগীর হৃদয় মারা যান। একই পথে নামতে গিয়ে দুই ভবনের মাঝে আটকে ভাগিনা রাসেলের বুকের পাঁজর ভেঙে যায় ও রাসেল সেখানেই আটকে থাকেন।

পরে এলাকাবাসী ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হতাহতরা সবাই মিশরে ৮-১০ বছর ধরে পোশাক কারখনার কাজে যুক্ত ছিলেন।

এ ব্যাপারে কায়রোর বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর (শ্রম) ইসমাইল হোসেন বলেন, আমরা এ বিষয়ে অবগত হয়েছি। ঘটনাটি অত্যন্ত অনাকাঙ্ক্ষিত এবং দুঃখজনক। অ্যালেক্স অ্যাপারেলের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। দূতাবাসের পক্ষ থেকে যা করণীয় তা করা হবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

মিশরে ভবনের পাইপ বেয়ে নামতে গিয়ে বাংলাদেশির মৃত্যু

আপডেট টাইম : 08:15:38 am, Wednesday, 21 June 2023

প্রবাস ডেস্ক: মিশরে স্থানীয় বখাটেদের হাত থেকে বাঁচতে ভবনের পাইপ বেয়ে নামতে গিয়ে আলমগীর হৃদয় নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুজন।

সোমবার (১৯ জুন) রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলমগীরের বাড়ি মাগুরা জেলায়। আহতরা হলেন নওগাঁর রাসেল হোসেন ও ভাগিনা রাসেল।

জানা যায়, বন্দরনগরী আলেক্সান্দ্রিয়ার আলেক্স অ্যাপারেল নামের একটি পোশাক কারখানায় কর্মরত চার বাংলাদেশি মিশরীয় দুই বান্ধবীকে বাসায় ডেকে আনেন। বিষয়টা দেখে স্থানীয় কিছু বখাটে এসে হানা দেয় ও তাদের কাছে টাকা দাবি করেন। দাবি অনুযায়ী টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা বাইরে থেকে তালা ঝুলিয়ে বিভিন্ন হুমকি দিতে থাকেন।

ভেতরে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিরা আতঙ্কিত হয়ে পাঁচতলা ভবনের পেছনের টয়লেটের পাইপ বেয়ে নিচে নেমে নামার চেষ্টা করেন। এ সময় নিচে পড়ে গিয়ে আলমগীর হৃদয় মারা যান। একই পথে নামতে গিয়ে দুই ভবনের মাঝে আটকে ভাগিনা রাসেলের বুকের পাঁজর ভেঙে যায় ও রাসেল সেখানেই আটকে থাকেন।

পরে এলাকাবাসী ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হতাহতরা সবাই মিশরে ৮-১০ বছর ধরে পোশাক কারখনার কাজে যুক্ত ছিলেন।

এ ব্যাপারে কায়রোর বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর (শ্রম) ইসমাইল হোসেন বলেন, আমরা এ বিষয়ে অবগত হয়েছি। ঘটনাটি অত্যন্ত অনাকাঙ্ক্ষিত এবং দুঃখজনক। অ্যালেক্স অ্যাপারেলের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। দূতাবাসের পক্ষ থেকে যা করণীয় তা করা হবে।