Dhaka , Wednesday, 29 May 2024

পর্তুগালে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত

  • Robiul Islam
  • আপডেট টাইম : 08:10:10 am, Monday, 10 July 2023
  • 81 বার

প্রবাস ডেস্ক: পর্তুগালের সান্তারাইম জেলার ইনট্রোকামেন্টো শহরে শনিবার রাতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন প্রবাসী বাংলাদেশি নিহত এবং তিনজন পর্তুগিজ আহত হয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যার পর কাজ শেষে কোম্পানির গাড়ি করে বাসায় ফেরার পথে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন শাহিনুর রহমান (২৭) এবং ইব্রাহীম আখন্দ (৪১)।

শাহিনুর রহমানের গ্রামের বাড়ি ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের দক্ষিণ বালুখণ্ডে। আর ইব্রাহীম আখন্দ মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার বাসিন্দা ছিলেন।

দুর্ঘটনার পর স্থানীয় জিএনআর পুলিশ, ডাক্তার এসে বাংলাদেশি দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে। এ ছাড়া্ একজন পর্তুগিজ নাগরিককে মুমূর্ষ অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য লিসবনে পাঠানো হয়েছে। বাকী দু’জন পর্তুগিজ নাগরিককে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বর্তমানে নিহতদের লাশের বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে বাংলাদেশ দূতাবাস এবং লিসবনের কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ যোগাযোগ করছেন।

উল্লেখ্য, শাহিনুর এবং ইব্রাহীম সান্তারাইমের ইনট্রোকামেন্টো শহরে একটি স্থানীয় পর্তুগিজ ওয়ার্কশপ এবং পেন্টিং কোম্পানিতে গত ৫ জুলাইতে যোগদান করেন। তাদের মৃত্যুতে লিসবনসহ গোটা পর্তুগালের বাংলাদেশ কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

পর্তুগালে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত

আপডেট টাইম : 08:10:10 am, Monday, 10 July 2023

প্রবাস ডেস্ক: পর্তুগালের সান্তারাইম জেলার ইনট্রোকামেন্টো শহরে শনিবার রাতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন প্রবাসী বাংলাদেশি নিহত এবং তিনজন পর্তুগিজ আহত হয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যার পর কাজ শেষে কোম্পানির গাড়ি করে বাসায় ফেরার পথে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন শাহিনুর রহমান (২৭) এবং ইব্রাহীম আখন্দ (৪১)।

শাহিনুর রহমানের গ্রামের বাড়ি ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার শোল্লা ইউনিয়নের দক্ষিণ বালুখণ্ডে। আর ইব্রাহীম আখন্দ মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার বাসিন্দা ছিলেন।

দুর্ঘটনার পর স্থানীয় জিএনআর পুলিশ, ডাক্তার এসে বাংলাদেশি দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে। এ ছাড়া্ একজন পর্তুগিজ নাগরিককে মুমূর্ষ অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য লিসবনে পাঠানো হয়েছে। বাকী দু’জন পর্তুগিজ নাগরিককে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বর্তমানে নিহতদের লাশের বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে বাংলাদেশ দূতাবাস এবং লিসবনের কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ যোগাযোগ করছেন।

উল্লেখ্য, শাহিনুর এবং ইব্রাহীম সান্তারাইমের ইনট্রোকামেন্টো শহরে একটি স্থানীয় পর্তুগিজ ওয়ার্কশপ এবং পেন্টিং কোম্পানিতে গত ৫ জুলাইতে যোগদান করেন। তাদের মৃত্যুতে লিসবনসহ গোটা পর্তুগালের বাংলাদেশ কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।