Dhaka , Friday, 24 May 2024

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে বাড়ির সামনে বাংলাদেশি যুবক নিহত

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : 02:23:15 am, Friday, 19 April 2024
  • 25 বার

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে নিজ বাড়ির সামনে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে তিনি নিহত হন। সংবাদমাধ্যম সিবিএস নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহত ওই যুবক পারিবারে অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন। ফলে পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশে ফোন করা হয়। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ওই যুবক অস্ত্র প্রদর্শন করলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি চালালে তিনি নিহত হন।

নিহত ওই যুবকের নাম হোসেন আল রাজি (১৯)। তিনি স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে ওয়ারেন শহরের রায়ান সড়কের ইলেভেন মাইলের উত্তরের একটি সড়কে পুলিশের গুলিতে নিহত হন।

ওয়ারেন পুলিশ জানিয়েছে, পরিবারের পক্ষ থেকে ফোন পেয়ে পুলিশ সেখানে যায়। তবে ওই যুবক পুলিশকে লক্ষ্য করে হ্যান্ডগান উঁচিয়ে ধরেন। এর ফলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, গুলি করার পর ওই যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। এ বিষয়ে তদন্ত চলমান রয়েছে।

রাজির বাবা মোহাম্মদ আতিক হোসেন জানান, পরিবারের সঙ্গে অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন রাজি। এজন্য জরুরি সেবা নম্বর ৯১১-এ কল করা হয়। তবে আমরা চাইনি, পুলিশ তাকে গুলি করে হত্যা করুক।

পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অস্বাভাবিক আচরণ শুরু করেন তিনি। তার অস্বাভাবিক আচরণের কারণে পরিবারের সদস্যরা ভড়কে যান। একপর্যায়ে তারা ভয় পেয়ে গ্যারেজে আশ্রয় নেন।

পুলিশের গুলিতে নিহত ওই বাংলাদেশি পরিবার সিলেটের বিয়ানীবাজার পৌর এলাকার সুপাতলার বাসিন্দা। তাদের পরিবারের তিন ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছেন। এরমধ্যে রাজি সবার বড়। সাত বছর আগে আতিক হোসেন ফ্যামিলি ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে যান।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে বাড়ির সামনে বাংলাদেশি যুবক নিহত

আপডেট টাইম : 02:23:15 am, Friday, 19 April 2024

যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে নিজ বাড়ির সামনে এক বাংলাদেশি যুবক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে তিনি নিহত হন। সংবাদমাধ্যম সিবিএস নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহত ওই যুবক পারিবারে অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন। ফলে পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশে ফোন করা হয়। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ওই যুবক অস্ত্র প্রদর্শন করলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি চালালে তিনি নিহত হন।

নিহত ওই যুবকের নাম হোসেন আল রাজি (১৯)। তিনি স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুর ১টা ৪৫ মিনিটে ওয়ারেন শহরের রায়ান সড়কের ইলেভেন মাইলের উত্তরের একটি সড়কে পুলিশের গুলিতে নিহত হন।

ওয়ারেন পুলিশ জানিয়েছে, পরিবারের পক্ষ থেকে ফোন পেয়ে পুলিশ সেখানে যায়। তবে ওই যুবক পুলিশকে লক্ষ্য করে হ্যান্ডগান উঁচিয়ে ধরেন। এর ফলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, গুলি করার পর ওই যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। এ বিষয়ে তদন্ত চলমান রয়েছে।

রাজির বাবা মোহাম্মদ আতিক হোসেন জানান, পরিবারের সঙ্গে অস্বাভাবিক আচরণ করছিলেন রাজি। এজন্য জরুরি সেবা নম্বর ৯১১-এ কল করা হয়। তবে আমরা চাইনি, পুলিশ তাকে গুলি করে হত্যা করুক।

পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে মা-বাবাসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অস্বাভাবিক আচরণ শুরু করেন তিনি। তার অস্বাভাবিক আচরণের কারণে পরিবারের সদস্যরা ভড়কে যান। একপর্যায়ে তারা ভয় পেয়ে গ্যারেজে আশ্রয় নেন।

পুলিশের গুলিতে নিহত ওই বাংলাদেশি পরিবার সিলেটের বিয়ানীবাজার পৌর এলাকার সুপাতলার বাসিন্দা। তাদের পরিবারের তিন ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছেন। এরমধ্যে রাজি সবার বড়। সাত বছর আগে আতিক হোসেন ফ্যামিলি ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে যান।