Dhaka , Friday, 24 May 2024

মালয়েশিয়ায় প্রতারিত শ্রমিকদের সহায়তায় কাজ করবে জাতিসংঘ

  • Reporter Name
  • আপডেট টাইম : 01:51:27 am, Tuesday, 7 May 2024
  • 32 বার

মালয়েশিয়া প্রতিনিধি : মালয়েশিয়ায় প্রতারিত শ্রমিকদের সহায়তায় কাজ করবে জাতিসংঘ। এর মধ্যে রয়েছে শ্রমিকদের ন্যায়বিচার এবং মৌলিক পরিষেবা, কাজের পরিধি বাড়ানো, টেকসই সমাধান।

শুক্রবার দেশটির ফ্রি মালয়েশিয়া টুডে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন, লেবার অর্গানাইজেশন এবং ইউনাইটেড নেশনস অফ ড্রাগস অ্যান্ড ক্রাইম অভিবাসীদের অধিকার আদায় ও প্রতারিত শ্রমিকদের জন্য কাজ করবে।

গত ১৯ এপ্রিল ফ্রি মালয়েশিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে উঠে আসে জাতিসংঘের ক্ষোভের বিষয়টি। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তিনটি সংস্থা মালয়েশিয়া সরকারকে বর্তমান শ্রম অভিবাসন ব্যবস্থা পর্যালোচনা, আন্তর্জাতিক মানদণ্ড মেনে স্বচ্ছ ও দক্ষ শ্রম অভিবাসন প্রক্রিয়া গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছে।

সংস্থাগুলো জানিয়েছে, বর্তমানে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। ২০২৩ সালের শুরুর দিক থেকেই অভিযোগ রয়েছে মালয়েশিয়ায় আসার পর অনেকের চাকরি দেওয়া হয় না, এমনকি আবাসন ব্যবস্থাও করা হয় না।

অভিযোগ রয়েছে শ্রমিকদের গাদাগাদি করে হোস্টেল, অ্যাপার্টমেন্ট বা এমনকি গুদামঘরে রাখা হয়, অস্বাস্থ্যকর সুবিধা, পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ না করা। পাসপোর্ট কোম্পানিতে আটকে রাখার মতো ঘটনা ঘটেছে।

গত অক্টোবরে, অভিবাসী অধিকারকর্মী অ্যান্ডি হল জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের দুর্দশার বিষয়ে তুলে ধরেছেন।

 

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Robiul Islam

মালয়েশিয়ায় প্রতারিত শ্রমিকদের সহায়তায় কাজ করবে জাতিসংঘ

আপডেট টাইম : 01:51:27 am, Tuesday, 7 May 2024

মালয়েশিয়া প্রতিনিধি : মালয়েশিয়ায় প্রতারিত শ্রমিকদের সহায়তায় কাজ করবে জাতিসংঘ। এর মধ্যে রয়েছে শ্রমিকদের ন্যায়বিচার এবং মৌলিক পরিষেবা, কাজের পরিধি বাড়ানো, টেকসই সমাধান।

শুক্রবার দেশটির ফ্রি মালয়েশিয়া টুডে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশন, লেবার অর্গানাইজেশন এবং ইউনাইটেড নেশনস অফ ড্রাগস অ্যান্ড ক্রাইম অভিবাসীদের অধিকার আদায় ও প্রতারিত শ্রমিকদের জন্য কাজ করবে।

গত ১৯ এপ্রিল ফ্রি মালয়েশিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে উঠে আসে জাতিসংঘের ক্ষোভের বিষয়টি। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তিনটি সংস্থা মালয়েশিয়া সরকারকে বর্তমান শ্রম অভিবাসন ব্যবস্থা পর্যালোচনা, আন্তর্জাতিক মানদণ্ড মেনে স্বচ্ছ ও দক্ষ শ্রম অভিবাসন প্রক্রিয়া গড়ে তোলার দাবি জানিয়েছে।

সংস্থাগুলো জানিয়েছে, বর্তমানে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। ২০২৩ সালের শুরুর দিক থেকেই অভিযোগ রয়েছে মালয়েশিয়ায় আসার পর অনেকের চাকরি দেওয়া হয় না, এমনকি আবাসন ব্যবস্থাও করা হয় না।

অভিযোগ রয়েছে শ্রমিকদের গাদাগাদি করে হোস্টেল, অ্যাপার্টমেন্ট বা এমনকি গুদামঘরে রাখা হয়, অস্বাস্থ্যকর সুবিধা, পর্যাপ্ত খাবার সরবরাহ না করা। পাসপোর্ট কোম্পানিতে আটকে রাখার মতো ঘটনা ঘটেছে।

গত অক্টোবরে, অভিবাসী অধিকারকর্মী অ্যান্ডি হল জেনেভায় জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের দুর্দশার বিষয়ে তুলে ধরেছেন।